• শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪, ১০ মহররম ১৪৪০
BK

কিশোরীদের ভাবনায় শুধুই জয়

আজ সেমিফাইনালে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ভুটান
কিশোরীদের ভাবনায় শুধুই জয়
ছবি : বাফুফে

প্রায় দুই বছর আগে এএফসি এশিয়ান কাপের বাছাই পর্বে ভুটানের কাছে ৩-১ গোলে যে মাঠে হেরেছিল বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল, সেই মাঠেই আজ বাংলার কিশোরীরা মুখোমুুখি হচ্ছে স্বাগতিক ভুটান মহিলা দলের। বড় ভাইদের লজ্জায় লাল করে দেওয়া চাংলিমিথান স্টেডিয়ামের টার্ফে সন্ধ্যা ৭টায় শুরু হবে লড়াইটি। সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ এ ম্যাচে পাহাড়ি কন্যাদের বিরুদ্ধে জয় তুলে নিয়ে ফাইনালে খেলার প্রত্যাশা লাল-সবুজ জার্সিধারীদের। বড় ভাইদের মতো কোনো ভুল করতে নারাজ তারা। স্বাগতিকদের বিরুদ্ধে নিজেদের শতভাগ দিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো সাফের ফাইনালে খেলাই লক্ষ্য তাদের। সেই লক্ষ্য নিয়েই এখন থিম্পুতে সকাল-বিকাল পরিশ্রম করে যাচ্ছে গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা।

যে ভুটানকে একটা সময় হেসে-খেলে হালি হালি গোল দিত বাংলাদেশ দল, সেই ভুটানের কাছেই দুই বছর আগে হেরে সমালোচনার তীরে বিদ্ধ হয় মামুনুল-জাহিদ-এমিলিরা। ভুটান-লজ্জার পর এখনো ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি পুরুষ ফুটবল দল। তবে এই দুই বছরে বাংলাদেশ মহিলা দল আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বেশ দাপট দেখিয়েছে। একের পর এক শিরোপা জিতে দেশের মুখ করেছে উজ্জ্বল। সবশেষ হংকংয়ে চার জাতির ফুটবল টুর্নামেন্টে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয় সাবিনা-কৃষ্ণারা। বড়দের মতো ছোটরাও আলো ছড়াচ্ছে আন্তর্জাতিক আসরগুলোতে। গত বছর ডিসেম্বরে ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবলের প্রথম আসরেই অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল স্বাগতিক বাংলাদেশ। এবার দ্বিতীয় আসরেও লক্ষ্য শিরোপা অক্ষুণ্ন রাখা।

ছোটদের এ টুর্নামেন্টে এরই মধ্যে নিজেদের শক্তির জানান দিয়েছে তহুরা-শামসুন্নাহাররা। গ্রুপ পর্বের দুই ম্যাচে ১৭ গোল করে ফেলেছে তারা। প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানকে ১৪-০ আর দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচে নেপালকে ৩-০ গোলে পরাজিত করে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবে সেমিফাইনালে পা রাখে ছোটনের শিষ্যরা। এবার শেষ চারের প্রতিপক্ষ স্বাগতিক ভুটান। তবে বাংলাদেশের মেয়েদের চোখ এখনই ফাইনালের দিকে। সেমিফাইনালের লড়াইকে সামনে রেখে গতকাল সকালে হোটেলেই জিমে অংশ নিয়ে ঘাম ঝরায় আঁখি-রেহেনারা। বিকালে ম্যাচ ভেন্যুতে ঘণ্টা দেড়েক বল নিয়ে কসরত করে টিম বাংলাদেশ। ভুটানের কিশোরীদের বিরুদ্ধে জয় ছাড়া অন্য কিছুই ভাবছে না বাংলাদেশ দল। গতকাল আলাপকালে দলের হেড কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বাংলাদেশের খবরকে বলেন, ‘ম্যাচটি দুই দলের জন্য ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচ। সেমিফাইনালে ভুলের কোনো সুযোগ নেই। আমাদের সামনে এখন লক্ষ্য একটাই- জয়। জয়ের বিকল্প কিছুই ভাবছি না। গত আসরেও ভুটানকে আমরা গ্রুপ পর্বে হারিয়েছিলাম। সেবার ৩-০ গোলে ধরাশায়ী করে ফাইনালে খেলেছিলাম আমরা। এবারো সেমিতে প্রতিপক্ষ পাহাড়ের দেশটি। স্বাগতিক হিসেবে তারা অনেক সুবিধা পাবে। দর্শক থাকবে তাদের পক্ষে। তবুও সব বাধা ডিঙিয়েই আমরা আজ জয় তুলে নিয়ে ফিরতে চাই।’ দলে কোনো ইনজুরি সমস্যা নেই উল্লেখ্য করে কোচ বলেন, ‘সবাই সুস্থ আছে। আশা করি আমরা আক্রমণাত্মক ফুটবল উপহার দিতে পারব। প্রথম দিকে পাওয়া সুযোগগুলো কাজে লাগাতে চাই। সেভাবেই ম্যাচের পরিকল্পনা করেছি।’

মিডফিল্ডার রেহেনা আক্তার অবশ্য স্বাগতিকদের নিয়ে মোটেও চিন্তিত নয়, ‘সেমিফাইনালে শতভাগ দিয়ে খেলতে হবে। ভুটানকে হারিয়ে ফাইনালে যেতে হবে। আমার স্বপ্ন শিরোপা জয়।’