• মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪, ১৪ মহররম ১৪৪০
BK

উৎসব কেন্দ্রিক কাজ করি

উৎসব কেন্দ্রিক কাজ করি
সংগৃহীত ছবি

ছোটপর্দার প্রিয়মুখ আশনা হাবিব ভাবনা। নাচ, উপস্থাপনা, মডেলিং ও অভিনয়ে অল্প সময়েই দর্শকদের মন জয় করেছেন তিনি। মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন বড়পর্দায়ও। বর্তমান ব্যস্ততা ও বিভিন্ন বিষয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছেন রুহুল আমিন ভূঁইয়া—

ঈদ পরবর্তী ব্যস্ততা—

আমি এখন উৎসব কেন্দ্রিক কাজ করি। ঈদ বা কোনো দিবস ছাড়া কাজ করি না। গল্প পছন্দ হলেই উৎসবের কাজগুলো করি।

ঈদ নাটকের সাড়া—

বেশ ভালো পাচ্ছি। এখন ফেসবুকের মাধ্যমে খুব সহজেই দর্শক রেসপন্স পাওয়া যায়। ভক্তরা নাটক দেখে ফেসবুকে তাদের প্রতিক্রিয়া জানাতে পারছে। প্রতি ঈদে বুবুন সিরিজের নাটক নির্মিত হচ্ছে ‘বুবুনের বাসর রাত’, ‘বুবুনের হানিমুন’, ‘বুবুন যাবে শ্বশুরবাড়ি, সঙ্গে যাবে কে?’ নাটকগুলো বেশ আলোচিত হয়েছে। তার ধারাবাহিকতায় এবার নির্মিত হয়েছিল ‘বুবুনের সংসার’। নাটকগুলোতে আমার অভিনয় সবাই প্রশংসা করেছেন। এখন ভিউসের যুগ। ‘বুবুনের সংসার’ নাটকটি প্রচার হওয়ার পর একদিনেই প্রচুর দর্শক দেখেছে। তা ছাড়া ‘ছায়াগাছ’ টেলিফিল্মটিও বেশ প্রশংসিত হয়েছে।

ঈদ নাটকের চরিত্রগুলো—

আমি সব সময় ভিন্ন ধরনের কাজ করতে পছন্দ করি। যাতে একটির সঙ্গে অন্যটির মিল না থাকে। বরাবরই আমার চেষ্টা থাকে নতুন কিছু উপহার দেওয়ার। বাকিটা দর্শক বলতে পারবে।

নাটকের ধারা—

আমার কাছে মনে হয় সব সময়ই নতুন নতুন কাজ হচ্ছে। প্রতিটি কাজেই গল্প থেকে শুরু করে সব কিছুতেই দর্শক নতুনত্ব পাচ্ছে।

মিডিয়ার পরিবর্তন—

এখন নাটক দেখার বিষয়টি খুবই অন্য রকম। সবাই ইন্টারনেট ব্যবহার করছে। এখন ইন্টারনেট টিভি হয়ে গেছে। সবাই ইন্টারনেটে নাটক দেখতে পছন্দ করে বেশি। এখানে কিছু করার নেই। কাজ ভালো হলে যেকোনো জায়গায় দর্শক দেখলে আমি খুশি।

টেলিভিশন নাকি ইউটিউব—

টেলিভিশন। আমরা নাটক করি টেলিভিশনের জন্য। এখন যদি কেউ ইউটিউবে নাটক দেখে আমাদের কিছু করার নেই। আবার চ্যানেলে নাটক প্রচার হওয়ার পর তাদের চ্যানেলের নিজস্ব অনলাইনে দিয়ে দেওয়া হয়। যাতে করে যারা টিভিতে দেখতে মিস করেছে তারা যেন অনলাইনেও দেখতে পারে।