• বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪, ৮ মহররম ১৪৪০
BK

সাফের লড়াই আজ শুরু

সাফের লড়াই আজ শুরু
ছবি : ইন্টারনেট

এশিয়ান গেমসে সাফল্যের স্মৃতি এখনো তরতাজা। কাতারকে হারিয়ে যেখানে ইতিহাস গড়েছিল বাংলাদেশের জাতীয় ফুটবল দল। প্রথমবারের মতো লাল-সবুজ শিবির জায়গা করে নিয়েছিল শেষ ষোলোতে। যদিও কোয়ার্টার ফাইনাল অস্পর্শই থেকেছে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে হেরে। তবে শেষ ষোলো থেকে বিদায় নিলেও থাইল্যান্ডের সঙ্গে ড্র ও কাতারের বিরুদ্ধে স্মরণীয় জয় দেশের ফুটবলকে দিয়েছে নবজাগরণের মন্ত্র, সামনে চলার প্রেরণা। এশিয়াডের সেই সুখস্মৃতি নিয়ে সাফ ফুটবল মিশনে আজ মাঠে নামছে বাংলাদেশ। দক্ষিণ এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে শামিল হবে বাংলাদেশসহ সাতটি দেশ। ফুটবল উত্তেজনায় কাঁপবে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামসহ গোটা দেশ।

বিকাল ৪টায় সাফ ফুটবলের উদ্বোধনী ম্যাচে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে নেপাল ও পাকিস্তান। সন্ধ্যা ৭টায় ভুটানের মোকাবেলা করবে স্বাগতিক বাংলাদেশ। সরাসরি সম্প্রচার করবে বাংলাদেশ টেলিভিশন ও চ্যানেল নাইন। সাতটি দল দুই গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে প্রাথমিক পর্ব। এ গ্রুপে বাংলাদেশের সঙ্গী নেপাল, পাকিস্তান ও ভুটান। বি গ্রুপে রয়েছে ভারত, মালদ্বীপ ও শ্রীলঙ্কা।

আজ ভুটানের সঙ্গে জয় দিয়ে মিশন শুরু করতে প্রস্তুত বাংলাদেশ। যদিও এই ভুটানের সঙ্গে বছর দুয়েক আগে এএফসির বাছাই পর্বে ৩-১ গোলে হেরে নির্বাসনে গিয়েছিল বাংলাদেশের ফুটবল। তবে ঘরের মাঠে ভুটানকে হারাতে মরিয়া জেমি ডে’র শিষ্যরা। অন্যদিকে বাংলাদেশকে সমীহ করলেও ভুটানের লক্ষ্যও জয়। চিত্র পরিষ্কার, মাঠের খেলায় উত্তেজনা থাকবে তুঙ্গে।

ভুটানের সঙ্গে হেড টু হেডে বাংলাদেশ এগিয়ে। সাতবারের মোকাবেলায় চারটিতে জয় মামুনুলদের। ড্র দুটি। একমাত্র হার ২০১৬ সালে। তবে ফিফা র্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে ভুটান। তাদের অবস্থান ১৮৩, সেখানে বাংলাদেশের ১৯৪। র্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকলেও আজকের ম্যাচে বাংলাদেশকে ফেভারিট হিসেবে মানছেন ভুটান কোচ ট্রেভর মরগান, ‘হোম গ্রাউন্ডে অবশ্যই বাংলাদেশ এগিয়ে। তবে তারুণ্যনির্ভর ভুটানের টিম নিয়ে আমি আশাবাদী।’

সাফ ফুটবলে বাংলাদেশ শিরোপা জিতেছে একবারই, ২০০৩ সালে, ঘরের মাঠে। এরপর ২০০৫ সালে ফাইনালে উঠলেও হারতে হয়েছিল ভারতের কাছে। ২০০৯ সালে সবশেষ সাফ ফুটবলের আয়োজন করেছিল বাংলাদেশ। সেবার সেমিফাইনাল থেকে বিদায়। এরপর গত তিন আসরে গ্রুপ পর্বের বৈতরণী পার হতে পারেনি বাংলাদেশ। নয় বছর পর আবারো সাফ ফুটবলের আয়োজক বাংলাদেশ। হোম গ্রাউন্ডের সুবিধা নিয়ে বহুল কাঙ্ক্ষিত শিরোপার দেখা পাবে তো জেমি ডে বাহিনী?