• শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪, ১১ মহররম ১৪৪০
BK
টাঙ্গাইলে চলন্ত বাসে ধর্ষণ

সুপারভাইজার গ্রেফতার স্বজনদের কাছে নির্যাতিতা

সুপারভাইজার গ্রেফতার স্বজনদের কাছে নির্যাতিতা
প্রতীকী ছবি

জেলার ভুয়াপুরে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্বপাড় এলাকায় চলন্ত বাসে প্রতিবন্ধী নারীকে গণধর্ষণের মামলায় বাসের সুপারভাইজার এরশাদকে (৪০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার ভোরে তাকে টাঙ্গাইলের কালিহাতির কুর্শাবেনু এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। একই দিন এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে নির্যাতিতাকে তার পরিবারের সদস্যদের কাছে ফিরিয়ে দিয়েছেন আদালত।

বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব থানার ওসি মোশাররফ হোসেন জানান, সোমবার ভোরে ‘টিটি এন্টারপ্রাইজের’ ওই বাসের সুপারভাইজার এরশাদকে গ্রেফতার করা হয়। টাঙ্গাইল আদালত পুলিশের পরিদর্শক আনোয়ারুল ইসলাম জানান, দুপুরে এরশাদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন করলে বিচারক শুনানির জন্য (আজ) মঙ্গলবার দিন রেখেছেন। তিনি আরো জানান, নির্যাতিতাকে তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার আদেশ দিয়েছেন আদালত। টাঙ্গাইলের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আশিকুজ্জামান সোমবার এ আদেশ দেন। প্রতিবন্ধী নারীর ভাইয়ের পক্ষে অ্যাডভোকেট শাহিন সিদ্দিকী আদালতে বোনকে ভাইয়ের জিম্মায় দেওয়ার আবেদন করেন। ঢাকার একটি হাউজিং কোম্পানিতে নিরাপত্তা প্রহরী ওই নারীর ভাই জানান, বোনকে নিরাপত্তা হেফাজত থেকে নিজেদের হেফাজতে পেয়ে তিনি খুশি। একই সঙ্গে বোনের ধর্ষকদের উপযুক্ত শাস্তির জন্য আইনি লড়াই চালিয়ে যাবেন বলে জানান। অ্যাডভোকেট শাহিন জানান, প্রতিবন্ধী ওই নারী তার ভাই ও বড় ভগ্নিপতির সঙ্গে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। সেখানে ২-১ দিন রেখে তাকে কুষ্টিয়ায় গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হবে।

কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার ওই প্রতিবন্ধী নারী গত ২৩ আগস্ট ঢাকায় বোনের বাসা থেকে নিখোঁজ হন। এ বিষয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেন তার স্বজনরা। বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থানার ওসি মোশাররফ বলেন, গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে টাঙ্গাইল থেকে বঙ্গবন্ধু সেতুতে যাওয়ার পথে টিটি এন্টারপ্রাইজের একটি বাসের ভেতর ওই নারীকে ধর্ষণ করা হয়। বাস থেকে একটি মেয়ের চিৎকার শুনে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্বপাড়ের ইব্রাহিমাবাদ রেল স্টেশনের নৈশপ্রহরী টহল পুলিশকে খবর দেন। পরে পুলিশ বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার ও বাসের হেলপার নাজমুলকে গ্রেফতার করে।

এ ঘটনায় বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থানার এসআই নূরে আলম সিদ্দিকী বাদী হয়ে বাসের চালক আলম খন্দকার ও তার সহযোগী নাজমুলের বিরুদ্ধে মামলা করেন। গ্রেফতার নাজমুল আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন। ওসি বলেন, ‘জবানবন্দিতে বাসের চালক আলম ও সুপারভাইজার এরশাদ মেয়েটিকে নির্যাতন করে বলে স্বীকার করেন নাজমুল। তার দাবি, ওই সময় তিনি বাসের বাইরে দাঁড়িয়ে পাহারা দিচ্ছিলেন।’ নাজমুলের দেওয়া তথ্যেই সুপারভাইজার এরশাদকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

গত বছর টাঙ্গাইলের মধুপুরে চলন্ত বাসে সিরাজগঞ্জের এক তরুণীকে গণধর্ষণ শেষে হত্যা করা হয়। তারও এক বছর আগে মধুপুরে চলন্ত বাসে আরেক তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে।