• মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫, ২৩ সফর ১৪৩৯
BK

আজ আয়না ঘর

আজ আয়না ঘর
সংগৃহীত ছবি

অনন্যা আর দীপ্ত দুজন দুজনকে ভালোবাসে। দীপ্ত বড়লোকের ছেলে আর অনন্যা মধ্যবিত্ত পরিবারের মেয়ে। তাদের ভালোবাসার কথা একসময় দুই পরিবারে জানাজানি হয়। দীপ্তর বাবা শরাফত অনন্যার বাবাকে দেখা করতে বলেন তাদের বিয়ে পাকাপাকি করার জন্য। অনন্যার বাবা জাহাঙ্গীর দীপ্তর বাবার সঙ্গে দেখা করতে তার অফিসে যান। কিন্তু অফিসে গিয়ে দীপ্তর বাবাকে দেখে চমকে ওঠেন জাহাঙ্গীর। দেখা যায় তাদের মধ্যে পূর্বপরিচয় রয়েছে। দীপ্তর বাবার সঙ্গে অনন্যার ফুফুর প্রেমের সম্পর্ক ছিল কিন্তু দীপ্তর বাবা তাকে ফেলে যাওয়ার কারণে সে আত্মহননের পথ বেছে নিয়েছিল। অনন্যার বাবা দীপ্তর বাবাকে দেখার পর তার সেই পুরনো কথা মনে পড়ে যায়। তিনি অনন্যাকে দীপ্তর সঙ্গে বিয়ে দিতে অস্বীকৃতি জানান।

দীপ্তর বাবা ভয়ে থাকেন যদি দীপ্ত তার অতীত অপকর্মের কথা জেনে যায়, তাই তিনি তার সহকর্মী মিজানের মাধ্যমে অনন্যাকে অপহরণ করেন। অনন্যার বাবা বাধা দেওয়াতে তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। দীপ্ত অনন্যাকে পাগলের মতো খুঁজতে থাকে। অনন্যাদের ভাড়া বাসা থেকে শুরু করে যেসব জায়গায় তারা দেখা করতে যেত সে জায়গাগুলোতে সে খুঁজতে থাকে। কিন্তু অনন্যাকে কোথাও খুঁজে পায় না। একসময় দীপ্ত মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে। এরপর ঘটতে থাকে বিচিত্র ঘটনা।

এভাবেই গড়ে উঠেছে ‘আয়না ঘর’ নাটকের গল্প। মাহবুব করিমের গল্পে নাটকটির নাট্যরূপ করেছেন হাসি ইকবাল। নাটকটি পরিচালনা করেছেন ইকবাল ইব্রাহিম পলাশ। বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সজল, ঊর্মিলা, হান্নান শেলী, শাহেলা আক্তার প্রমুখ। আজ রাত ৮টায় আরটিভিতে প্রচার হবে বিশেষ এ নাটকটি।