• শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪, ১০ মহররম ১৪৪০
BK

মিড রেঞ্জের স্মার্টফোন প্রিমো এস সিক্স ডুয়েল

মিড রেঞ্জের স্মার্টফোন প্রিমো এস সিক্স ডুয়েল
ছবি : ইন্টারনেট

সৈয়দ মো. মাসরুর রহমান

দেশি মোবাইল ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন সম্প্রতি বাজারে এনেছে মিড রেঞ্জের ফোরজি স্মার্টফোন প্রিমো এস সিক্স ডুয়েল। স্মার্টফোনটি তৈরি করা হয়েছে গাজীপুরের চন্দ্রায় অবস্থিত ওয়ালটনের নিজস্ব কারখানায়। দেশে তৈরি এটিই প্রথম ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরাসমৃদ্ধ স্মার্টফোন। ফোনটির ডিজাইন বেশ আকর্ষণীয়। এছাড়া মিড রেঞ্জের স্মার্টফোন বিবেচনায় ফিচারেও গ্রাহকদের চাহিদা অনুযায়ী দারুণ সব ফিচার রাখা হয়েছে। স্মার্টফোন বিস্তারিত রিভিউ থাকছে আজ-

ডিজাইন : স্টাইলিশ ডিজাইনের স্মার্টফোনটি প্রথম দেখাতেই সবার নজর কাড়বে। মসৃণ ও বাঁকানো কোনা এর সৌন্দর্য বাড়িয়েছে। স্মার্টফোনটি বেশ হালকা, ব্যাটারিসহ ওজন ১৫৭ গ্রাম। ৮.৩ মিমি স্লিম ফোনটি হাতে ধরলে একটা প্রিমিয়াম ফিল পাওয়া যায়। এর পেছনের ডুয়েল ক্যামেরা ওপরের বাঁ পাশের কোনায় দেওয়া হয়েছে। কালো ও নীল এ দুটি ভিন্ন রঙে ফোনটি পাওয়া যায়।

ডিসপ্লে : ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৫.৭ ইঞ্চি ইন-সেল এইচডি প্লাস ফুল ভিউ আইপিএস ডিসপ্লে, যার আসপেক্ট রেশিও ১৮:৯। এর ডিসপ্লে রেজ্যুলেশন ১৪৪০ বাই ৭২০ পিক্সেল। ফাইভ ফিঙ্গার মাল্টিটাচ সুবিধাযুক্ত স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ২.৫ডি কার্ভড গ্লাস। ফলে বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার, ভিডিও দেখা, গেম খেলা, বই পড়া বা ইন্টারনেট ব্রাউজিংয়ে বেশ ভালো অভিজ্ঞতা মিলবে।

অপারেটিং সিস্টেম : এস সিক্স ডুয়েলে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে থাকছে অ্যান্ড্রয়েডের সবশেষ সংস্করণ ৮.১ ওরিও। ফলে এ ফোনের কার্যক্ষমতা ও গতি চলনসই। ফোরজি সমর্থিত সেটটিতে একটি মাইক্রো সিম, আরেকটি ন্যানো সিম অথবা মেমরি কার্ড ব্যবহার করা যাবে।

প্রসেসর ও মেমরি : প্রিমো এস সিক্স ডুয়েল ফোনে থাকছে ৬৪ বিটের ১.৫ গিগাহার্টজ এআরএম কর্টেক্স এ৫৩ কোয়াডকোর প্রসেসর। এর সঙ্গে থাকছে ৩ গিগাবাইট এলপিডিডিআর৩ র্যাম। ফলে গেম খেলা বা বেশিসংখ্যক অ্যাপ ইনস্টল করলেও ফোন ধীরগতির হয় না। গ্রাফিক্স হিসেবে ব্যবহার হয়েছে পাওয়ার ভিআর জিই৮১০০। ফলে বিভিন্ন অ্যাপ ব্যবহার, ইন্টারনেট ব্রাউজিং, থ্রিডি গেমিং এবং দ্রুত ভিডিও লোড ও ল্যাগ-ফ্রি ভিডিও স্ট্রিমিং সুবিধা দেবে। ফোনটির অভ্যন্তরীণ মেমরি ৩২ গিগাবাইটের। এছাড়া মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে ২৫৬ গিগাবাইট পর্যন্ত বাড়ানোর সুযোগও থাকছে।

ক্যামেরা : ফোনটির পেছনে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত বিএসআই ১৩ ও ২ মেগাপিক্সেলের ডুয়েল ক্যামেরা। এফ ২.০ অ্যাপারচারসমৃদ্ধ এই ক্যামেরায় ব্যবহার হয়েছে ৫পি লেন্স। এর ফেস ডিটেকশন অটো ফোকাস (পিডিএএফ) প্রযুক্তি থাকায় ০.১ সেকেন্ডেই স্বয়ংক্রিয়ভাবে ক্যামেরার ফোকাস সেট করবে। ১৩ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি সেন্সর ছবির ডিটেইলস ধারণ করবে। আর ২ মেগাপিক্সেলের সেকেন্ডারি সেন্সর ধারণ করবে ছবির ডেপথ অব ফিল্ড ইনফরমেশন, যা ডিএসএলআর ক্যামেরার মতো প্রফেশনাল ব্যাকগ্রাউন্ড ও ইফেক্ট দেবে। অর্থাৎ পোর্ট্রেট মোডে ছবি তোলা যাবে এ স্মার্টফোনটিতে।

আকর্ষণীয় সেলফির জন্য সামনে রয়েছে সফট এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত বিএসআই ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। এফ ২.২ অ্যাপারচারসমৃদ্ধ এই ক্যামেরায় ব্যবহার হয়েছে ৪পি লেন্স। উভয় ক্যামেরায়ই ফুল এইচডি ভিডিও ধারণের সুবিধা থাকছে।

ব্যাটারি : স্মার্টফোনটিতে ব্যবহার হয়েছে ৩৫০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি। একবার চার্জ দিলে সাধারণত অনায়াসেই এক দিন ব্যবহার করা সম্ভব। এছাড়া এতে থাকছে রিভার্স চার্জিং সুবিধা। এর মাধ্যমে স্মার্টফোনটি পাওয়ার ব্যাংক হিসেবেও ব্যবহার করা যাবে। অর্থাৎ জরুরি প্রয়োজনে ফোনটি থেকে অন্যান্য ডিভাইসেও চার্জ দেওয়া যাবে।

কানেক্টিভিটি : কানেক্টিভিটির জন্য এই ফোনে আছে ওয়াইফাই, ব্লুটুথ, ইউএসবি ২, ওয়্যারলেস ডিসপ্লে, ল্যান হটস্পট ও ওটিজি সুবিধা।

নিরাপত্তা ফিচার : ওয়ালটনের এই ফোনে তিন ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা রয়েছে। এতে ফেস আনলক প্রযুক্তি দেওয়া হয়েছে। ফলে ব্যবহারকারী ফোন আনলক করতে তার মুখাবয়ব ব্যবহার করতে পারবেন। এতে অনাকাঙ্ক্ষিত কারো হাতে পড়লেও ফোনের তথ্য থাকবে সুরক্ষিত। এছাড়া ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ও প্যাটার্ন তো থাকছেই।

অন্যান্য : বিল্টইন ডিটিএস মিউজিক সিস্টেমসহ ভার্চুয়াল সারাউন্ড সাউন্ড, স্প্লিট স্ক্রিন, স্ক্রিন রেকর্ডার, রেকর্ডিং সুবিধাসহ এফএম রেডিও, ফুল এইচডি ভিডিও প্লেব্যাক, নোটিফিকেশন লাইট, স্মার্ট আই প্রটেকশন ইত্যাদি ফিচারও পাওয়া যাবে স্মার্টফোনটিতে।

দাম : স্মার্টফোনটির দাম ধরা হয়েছে ১৪ হাজার ৯৯৯ টাকা।