• বৃহস্পতিবার, ১৭ জানুয়ারি ২০১৯, ৪ মাঘ ১৪২৪, ২৯ রবিউস সানি ১৪৩৯
BK

আজকের দিনটা শুধু আমার

আজকের দিনটা শুধু আমার
সংগৃহীত ছবি

ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পপি। ১৯৯৭ সালে মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ‘কুলি’ ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে রুপালি পর্দায় অভিষেক ঘটে তার। প্রথম ছবি দিয়েই জনপ্রিয়তা অর্জন করেন পপি। অভিনয়ের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। আজ তার জন্মদিন। জন্মদিনের আয়োজন সম্পর্কে জানতে চাইলে পপি বলেন, ‘আজকের দিনটা শুধু আমার। জন্মদিন ঘরোয়াভাবে পালন করব। পরিবার, বন্ধু-বান্ধবীদের সঙ্গে সময় কাটাব। প্রতিবারের মতো এবারো এতিম শিশুদের সঙ্গে সময় কাটাব এবং তাদের মাঝে খাবার বিতরণ করব। পপি ফ্যান ক্লাবের পক্ষ থেকে বিভিন্ন জায়গায় জন্মদিন পালনের আয়োজন করা হবে। সুযোগ পেলে সেগুলোতে অংশ নেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।’

জনপ্রিয় এ চিত্রনায়িকা বর্তমানে ব্যস্ত রয়েছেন একাধিক ছবির কাজ নিয়ে। সাদেক সিদ্দিকী পরিচালিত ‘সাহসী যোদ্ধা’ ছবিতে অভিনয় করছেন তিনি। ছবিটির ব্যাপারে পপি জানান, প্রায় ৪০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। খুব শিগগিরই পরের লটের চিত্রায়ণ শুরু হবে।

ক্যারিয়ারে কোন কাজটি এখনো করা হয়নি? উত্তরে পপি বলেন, ‘আসলে বাকি তো অনেক কিছুই আছে। আমার তো মনে হয় আমি এখনো কিছুই করতে পারিনি। আরো ভালো ছবি করা বাকি আছে। একটা বৃদ্ধাশ্রম করার ইচ্ছা আছে। আল্লাহ যদি আমাকে সামর্থ্য দেন তাহলে বৃদ্ধাশ্রমটি অবশ্যই করব।’

‘আমার কাজ, আমার স্বীকৃতি, এত মানুষের ভালোবাসা সবই আমাকে তৃপ্তি দেয়। আমি ভাগ্যবতী এ কারণে যে মানুষের অনেক ভালোবাসা আমি পেয়েছি। মানুষের ভালোবাসা তো সবাই পায় না। মানুষের ভালোবাসার কারণেই আজকে আমি পপি। আর পপি হয়েই মানুষের মনে থাকতে চাই। আমি সত্যি ভাগ্যবতী, আল্লাহ আমাকে মানুষের এত প্রিয় করে তুলেছেন।’ ক্যারিয়ারে তৃপ্তির বিষয় জানতে চাইলে এমনটাই বলেন পপি।

গান শোনে, বই পড়ে এবং সিনেমা দেখে অবসর কাটে পপির। জানিয়ে তিনি বলেন, ‘অনেকে অবসর পেলে ঘুরতে বেরিয়ে যায়। বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দেয়। আমি কিন্তু তেমন না। আমি একটু ঘরকুনো ধরনের। অবসর পেলেই আমি ঘর গোছাতে শুরু করি।’

সংসার গোছাবেন কবে? উত্তরে পপি হেসে বলেন, ‘সংসার করার মতো উপযুক্ত মানুষ পেলে তখন এটা নিয়ে চিন্তা করব। এখন আসলে মানুষকে বিশ্বাস করা খুব মুশকিল। এখন রিলেশনে এত বেশি অসততা, ভণ্ডামি, ছলচাতুরি দেখা যায় তাতে এ বিষয়টা নিয়ে আমি সত্যি চিন্তিত। আশেপাশে এত বেশি ব্রেকআপ দেখে আমি ভীত। তাই কোনো ঝুঁকি নিতে চাই না। জীবনসঙ্গী হিসেবে সৎ, সত্যবাদী, ভালো মনের অধিকারী একটা মানুষ চাই। উপযুক্ত মানুষ পেলেই বুঝেশুনে বিয়ে করে ফেলব।’