• বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪, ৯ মহররম ১৪৪০
BK

মিশন এশিয়া কাপ

মিশন এশিয়া কাপ
সংগৃহীত ছবি

এশিয়া কাপে দু’বার ফাইনাল খেলেছে বাংলাদেশ। দু’বারই হতাশা সঙ্গী। ২০১২ সালে প্রথমবার পাকিস্তানের সঙ্গে ফাইনালে ২ রানের হারের তিক্ত স্মৃতি এখনো কাঁদায় সমর্থকদের। চার বছর পর ২০১৬ সালে ভারতের সঙ্গে ফাইনালে একপেশে হার। দু’বারের ফাইনালই বাংলাদেশ খেলেছে ঘরের মাঠে। মাঝে ২০১৪ এশিয়া কাপও হয়েছিল বাংলাদেশে। অর্থাৎ টানা তিনটি এশিয়া কাপ আয়োজন করেছিল বাংলাদেশ। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে মাঠে গড়াবে এশিয়া কাপ ক্রিকেটের ১৪তম আসর। এবার ভেন্যু মিরপুর নয়, সুদূর সংযুক্ত আরব আমিরাত। দুবাই ও আবুধাবি, দুই শহরে এক ট্রফির জন্য লড়বে এশিয়ার মোট ছয়টি দেশ। পেছনের হতাশা দূরে ঠেলে নতুন স্বপ্ন বুকে ধারণ করে গতকাল সন্ধ্যায় দুবাইয়ের উদ্দেশে দেশ ছেড়েছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল।

এশিয়া কাপে টানা তিনটি আসর ঘরের মাঠে খেলেছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে দুইবার ফাইনালে উঠেছিল টাইগার শিবির। সবশেষ আসর হয়েছিল টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। যেখানে ভারত দেখিয়েছিল তাদের দাপট। তবে আসন্ন এশিয়া কাপ হবে ওয়ানডে ফরম্যাটে। ফলে বাংলাদেশের স্বপ্নটা বেশ চওড়া।

দেশ ছাড়ার এক দিন আগেও ক্রিকেটারদের চোট নিয়ে শঙ্কায় ছিলেন সমর্থকরা। সাকিবের ফিটনেস, তামিমের ডান হাতের অনামিকায় চিড়, শান্তর আঙুলে ব্যথা। সব মিলিয়ে অস্বস্তিকর পরিবেশ। তবে আশার কথা হলো, দেশ ছাড়ার আগে সব ইনজুরির শঙ্কা হাওয়ায় মিলে গেছে। তামিমের আঙুলে চিড় ধরা পড়েনি। নতুন করে আঘাত না লাগলে প্রথম ম্যাচ থেকেই পাওয়া যাবে তামিমকে। সাকিবও যুক্তরাষ্ট্র থেকে নিজের শতভাগ ফিটনেসের খবর জানিয়েছে। শান্তও বলেছেন, তার ব্যথাটা আগের মতো নেই। তার মানে, শতভাগ ফিটনেস নিয়েই দুবাই গেলেন তামিম-মাশরাফিরা।

১৫ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে এশিয়া কাপের ময়দানি লড়াই। উদ্বোধনী ম্যাচেই দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ খেলবে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে। দিন-রাতের ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৫টায়। বি-গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশ মাঠে নামবে ২০ সেপ্টেম্বর। প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান। এই ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আবুধাবির শেখ জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। এ-গ্রুপে রয়েছে পাকিস্তান, ভারত ও বাছাইপর্ব খেলে আসা হংকং। দুই গ্রুপ থেকে দুটি করে চারটি দল খেলবে সুপার ফোর পর্বে। এই পর্বে প্রত্যেক দল খেলবে একে অপরের সঙ্গে। পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে থাকা দুটি দল ফাইনাল খেলবে আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর। ভেন্যু দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম।