• মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

ছবি : সংগৃহীত

রাজনীতি

ক্ষমতায় এলে কোটা পদ্ধতির সংস্কার করবে বিএনপি : ফখরুল

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১০ এপ্রিল ২০১৮

সরকারি চাকরিতে কোটা পদ্ধতির সংস্কার দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে যৌক্তিক বলে উল্লেখ করেছে বিএনপি। একই সঙ্গে তারা ক্ষমতায় এলে পদ্ধতিটির সংস্কার করবে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সোমবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপির ভিশন-২০৩০-এ থাকা একটি অনুচ্ছেদ উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, নারী ও প্রান্তিক জাতি-গোষ্ঠীর কোটা ছাড়া বাকি কোটা পদ্ধতি বাতিল করা হবে। মেধার মূল্যায়ন নিশ্চিতের লক্ষ্যে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় যথাযথ সংস্কার করা হবে।’ তিনি বলেন, ‘কোটা প্রথার সঙ্গে দেশের প্রায় চার কোটি শিক্ষিত যুবসমাজের জীবন-জীবিকার প্রশ্ন জড়িত। দেশকে সত্যিকারভাবে গড়ে তুলতে হলে মেধার কোনো বিকল্প নেই।’

রোববার শাহবাগ এলাকায় আন্দোলনকারীদের সরিয়ে দিতে পুলিশের ভূমিকার সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবি আদায়ের আন্দোলনে বিনা উসকানিতে পুলিশের বর্বরোচিত হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। যেকোনো ব্যক্তি বা সংগঠন তাদের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে নিজেদের বঞ্চিত মনে করলে প্রতিকার পাওয়ার জন্য সোচ্চার হবেন— এটাই স্বাভাবিক।’ এ সময় আটক শিক্ষার্থীদের মুক্তির দাবি জানান তিনি।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘প্রায় এক দশকে বর্তমান সরকার বারবার তাদের কার্যক্রমের মাধ্যমে প্রমাণ করেছে গণতন্ত্রের নিয়ম-পদ্ধতির প্রতি কোনো শ্রদ্ধাবোধ নেই। ফলে অন্যায়-অবিচারের শিকার হয়েছে দেশের জনগণ; বিশেষ করে এ দেশের মেধাবী ও শিক্ষিত তরুণসমাজ। বর্তমান সরকার সমবেত মানুষের আওয়াজ শুনলেই শিহরিত হয়। জনগণের চাহিদা ও দাবিকে সব সময় পাশ কাটিয়ে তারা কেবল আওয়ামী চেতনার মানুষদের স্বার্থে কাজ করে গেছে।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান বেগম সেলিমা রহমান, শামসুজ্জামান দুদু, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, প্রশিক্ষণবিষয়ক সম্পাদক এবিএম মোশাররফ হোসেন, শিক্ষা সম্পাদক এবিএম ওবায়দুল ইসলাম প্রমুখ।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads