• মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
গভর্নরের পদত্যাগ দাবি করলেন মওদুদ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির নেতা মওদুদ আহমদ

ছবি: সংগৃহীত

রাজনীতি

গভর্নরের পদত্যাগ দাবি করলেন মওদুদ

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২১ জুলাই ২০১৮

বাংলাদেশ ব্যাংকের ভল্টে রাখা সোনা নিয়ে হেরফেরের অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে গভর্নর মো. ফজলে কবীরের পদত্যাগ দাবি করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির নেতা মওদুদ আহমদ।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘সংঘাতের রাজনীতির পথ সুশাসনের জন্য হুমকি’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ দাবি করেন।  ‘বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক সাংস্কৃতিক জোট’ নামের একটি সংগঠনের অষ্টম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের এক অনুসন্ধানের তথ্যের ভিত্তিতে সম্প্রতি দৈনিক প্রথম আলোতে প্রকাশিত এক সংবাদ প্রতিবেদনে বলা হয়, ৮০ শতাংশ বিশুদ্ধ সোনা হিসেবে দেওয়া সোনা দুই বছর পর পরীক্ষা করে তাতে ৪৬ দশমিক ৬৬ শতাংশ সোনা পাওয়া গেছে। আর ২২ ক্যারেটের সোনা হয়ে গেছে ১৮ ক্যারেট।

এরপর গভর্নর ও এনবিআর চেয়ারম্যানকে নিয়ে বৈঠকের পর অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের ভল্টে রাখা সব সোনা ঠিক আছে।

মওদুদ আহমেদ বলেন, এই সোনা চুরির দায়-দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নরকে পদত্যাগ করতে হবে। গভর্নরের উচিৎ হবে অবিলম্বে পদত্যাগ করা, তার নিজের সম্মান রক্ষা করার জন্য। উনি (গভর্নর) যদি ওই পদে থাকেন, সেখানে কোনো রকমের সুষ্ঠু তদন্ত সম্ভবপর নয়। যার কারণে তার সরে যাওয়া উচিত।

তিনি বলেন, এখন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ব্যাংক হয়ে গেছে সোনা চোর এবং টাকা চোরের। যেখানে কেন্দ্রীয় ব্যাংক নিয়ন্ত্রণ করে সমস্ত ব্যাংকগুলোকে, সেখানে তাদের ওখানে যদি ঘটনা ঘটে, তাহলে তো এখানে লুটতরাজ হবেই। সমস্ত ব্যাংকগুলোকে আজকে ফোকলা করে দেওয়া হয়েছে সরকারি দলের ব্যবসায়ী ও মদদপুষ্ট রাজনীতিবিদদের টাকা দিয়ে, ঋণ দিয়ে।

কোটা সংস্কারের বিষয়ে মওদুদ বলেন, সুপ্রিম কোর্টে এমন কোনো রায় নাই যে এই কোটা পদ্ধতি সংস্কার করা যাবে না। এধরনের কোনো রায় তারা দেখাতে পারবেন না।

সংগঠনের উপদেষ্টা সালমান ওমর রুবেলের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহও বক্তব্য রাখেন।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads