• বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
বি. চৌধুরীর মুখে হাসিনা-খালেদার ‘প্রশংসা’

বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী

সংরক্ষিত ছবি

রাজনীতি

বি. চৌধুরীর মুখে হাসিনা-খালেদার ‘প্রশংসা’

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কিছু গুণের কথা তুলে ধরেছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ও বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী। আজ শনিবার রাজধানীর গুলশানের একটি ক্লাবে ‘প্রজন্ম বাংলাদেশ’ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গুণের কথাও তুলে ধরেন তিনি।

বদরুদ্দোজার ছেলে ও প্রজন্ম বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মাহী বি. চৌধুরী অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন। বিকল্পধারার এই সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শুরুতেই জানিয়ে দেন অনুষ্ঠানে কোনো ‘নেগেটিভ’ কথা চলবে না। কেউ বললে সঙ্কেত দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হবে। প্রশ্নোত্তর পর্বে এক দর্শক বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার কী কোনো পজিটিভ দিক নেই?’ 

প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘২০১৪ সাল থেকে এখন পর্যন্ত যারা ক্ষমতায় ছিলেন তাদের সম্পর্কে কোনো পজিটিভ কথা বলব না।’ পরে বদরুদ্দোজা চৌধুরী প্রধানমন্ত্রীর গুণের কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী দীর্ঘদিন বিদেশে ছিলেন। তারপর দেশে ফিরেছেন। দেশপ্রেম না থাকলে ফিরে আসতেন না। তার পিতার প্রতি যে অবিচার হয়েছে তার প্রতিকার তিনি করার চেষ্টা করেছেন। আওয়ামী লীগ অসংগঠিত একটি দল ছিল। দেশে ফিরে সেই দলকে সংগঠিত করেছেন- এটাও তার গুণ।’ 

তিনি আরো বলেন, ‘আর হ্যাঁ, উনি ভালো ছড়া বলেন- এটা জানতাম না। গুণী মানুষ তিনি; ছড়া বলেছেন, ‘মান্না জুড়ে দেয় কান্না’। পত্রিকায় দেখেছি তার আরো একটা গুণ আছে। শুনেছি তিনি রান্না করেন। ‘প্রধানমন্ত্রী হয়ে রান্না করা...তাও ইলিশ ভাপি।’

এ সময় মাহী বিএনপি চেয়ারপারসনের গুণের কথা বলতে স্মরণ করিয়ে দিলে বি. চৌধুরী বলেন, ‘উনি গৃহিণী ছিলেন। রাজনীতিতে এসে অবদান রেখেছেন। তাকে স্বার্থ ত্যাগ করতে হয়েছে। কারাবরণ করেছেন; এটাও তার রাজনীতির অংশ।’

অনুষ্ঠানের শুরুতে বক্তব্য দিতে উঠে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন নাগরিক ঐক্যের মান্নাকে ভুল করে বিকল্পধারার আহ্বায়ক বলেন। তখন দর্শক সারি থেকে ধরিয়ে দেওয়া হয়। মঞ্চের সামনে বসে থাকা বি. চৌধুরী তখন বলে ওঠেন, বিকল্পধারার আহ্বায়ক হলে কোনো সমস্যা নেই। ‘প্লান বি পজিটিভ’ শিরোনামে ওই অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, বিকল্পধারার মহাসচিব এমএ মান্নান।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads