• বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০১৮

মামলা-হয়রানির প্রতিকারে ইসিতে বিএনপির চিঠি

লোগো বিএনপি

রাজনীতি

মামলা-হয়রানির প্রতিকারে ইসিতে বিএনপির চিঠি

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১৭ নভেম্বর ২০১৮

সারা দেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে আটক ৪৭২ নেতাকর্মীর তালিকা নির্বাচন কমিশনে (ইসি) জমা দিয়েছে বিএনপি। একই সঙ্গে গ্রেফতার ও গায়েবি মামলা বন্ধে ইসির হস্তক্ষেপ চেয়েছে দলটি। গতকাল শুক্রবার সকালে বিএনপির পক্ষ থেকে ইসিতে নেতাদের তালিকা সংবলিত চিঠি পৌঁছে দেওয়া হয়।

গত বুধবার ইসির সঙ্গে বৈঠক করেন ঐক্যফ্রন্টের নেতারা। এ সময় ফ্রন্টের নেতারা ইসিকে জানান, সারা দেশে গায়েবি মামলা দিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের হয়রানি করা হচ্ছে। জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা বিএনপি নেতাদের মামলার তালিকা ইসিতে পাঠাতে বলেন। তালিকা পাঠালে সহযোগিতা করা হবে। বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান গতকাল বিকালে বাংলাদেশের খবরকে বলেন, সিইসির আশ্বাস পেয়ে আটক নেতাকর্মীদের তালিকা পাঠানো হয়েছে ইসিতে।

মনোনয়ন ফরম কেড়ে নিয়ে ছিঁড়ে ফেলেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী- সিইসিকে লেখা চিঠিতে মির্জা ফখরুল : সিইসি’র কাছে পাঠানো চিঠিতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর থেকে বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেওয়া হচ্ছে। প্রতিদিন গ্রেফতার করা হচ্ছে শত শত নেতাকর্মীকে। গত চার দিন ধরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী বিএনপির নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের ও আশপাশের সড়কে পাহারা বসিয়েছে। বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থীরা দলীয় ফরম সংগ্রহ করার জন্য দলীয় কার্যালয়ে আসার পথে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা তাদের দেহ তল্লাশি করছেন এবং আটক করছেন। এমনকি মনোনয়ন ফরম কেড়ে নিয়ে ছিঁড়ে ফেলেছেন।

চিঠিতে বলা হয়, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর এ ধরনের তৎপরতা নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করবে। শুধু গত বৃহস্পতিবার বিএনপির অফিস ও তার আশপাশের এলাকা থেকে ৬০-৭০ জনকে আটক করা হয়েছে, যা অব্যাহত রয়েছে। এতে ইসির নিরপেক্ষতা নিয়েও জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অতি উৎসাহী কিছু সদস্য ইসির নির্দেশ অমান্য করে বিএনপির নেতাকর্মীদের হয়রানি করছেন।

চিঠিতে বিএনপি মহাসচিব দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে গায়েবি মামলা ও গ্রেফতার অভিযান বন্ধে ইসির হস্তক্ষেপ কামনা করে বলেন, ৮ নভেম্বর নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর থেকে সারা দেশে পুলিশ বিএনপির মোট ৪৭২ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে। একই সঙ্গে পাঁচটি হয়রানিমূলক এজাহারও পাওয়া গেছে। পরবর্তী সময় কাউকে আটক করা হলে বা কোনো ধরনের গায়েবি মামলা হলে সেই তথ্য তাৎক্ষণিক ইসিকে জানানো হবে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads