• সোমবার, ২৭ মে ২০১৯, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ  কমিটি কাল

লোগো ছাত্রলীগ

রাজনীতি

ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ  কমিটি কাল

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২০ এপ্রিল ২০১৯

দীর্ঘ সময়ে সংগঠনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতে না পারায় ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। আগামীকাল রোববারের মধ্যে সংগঠনটির পূর্ণাঙ্গ কমিটি করা হবে বলে তারা জানান। ২০১৮ সালের ৩১ জুলাই শোভন-রাব্বানী নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি অনুমোদন করা হয়। এরপর কেটে গেছে সাড়ে ৮ মাস। কিন্তু এই দীর্ঘ সময়েও পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতে তারা ব্যর্থ হন। গত বৃহস্পতিবার রাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে গণভবনে সাক্ষাৎ করেন ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। সেখানে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর কাছে ক্ষমা চেয়েছেন শোভন ও রাব্বানী।  সাক্ষাৎ শেষে সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী গণমাধ্যমকে জানান, আগামীকাল রোববারের মধ্যে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করা হবে। এর মধ্যে রাজধানীর তিন গুরুত্বপূর্ণ ইউনিট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণকে তিন দিনের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটির খসড়া দিতে বলা হয়েছে।

গোলাম রাব্বানী বলেন, ২১ তারিখের মধ্যে কমিটি প্রস্তুত করে আমরা আপার (প্রধানমন্ত্রী) কাছে জমা দেব। সেদিনই কমিটি ঘোষণা হবে, যদি আপা অনুমোদন করেন।  গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার ইচ্ছা রয়েছে। আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে কথা বলে তাদের এ বিষয়ে জানানো হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, তাদের সঙ্গে চূড়ান্ত কথা হয়েছে। আমরা দু-একদিন সময় বেঁধে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার কথা জানিয়ে দিয়েছি।

ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্রের ১১(খ) ও (গ) ধারা অনুযায়ী, কেন্দ্রীয় কমিটির মেয়াদ কার্যকাল দুই বছর। গঠনতন্ত্রে জেলা ইউনিটগুলোর মেয়াদ রাখা হয়েছে এক বছর। কিন্তু সম্মেলনের পর প্রায় এক বছর অতিবাহিত হলেও পূর্ণাঙ্গ হয়নি কেন্দ্রীয় কমিটি। এমন পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে কমিটি গঠনে নতুন সময়ের কথা জানায় ছাত্রলীগ।

গত বছরের ১১ ও ১২ মে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন ছাড়াই ছাত্রলীগের দুই দিনব্যাপী ২৯তম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মেলন হয় ২৯ এপ্রিল। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তরের সম্মেলন হয় যথাক্রমে ২৫ ও ২৬ এপ্রিল। সম্মেলনের আড়াই মাস পর গত বছরের ৩১ জুলাই রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনকে সভাপতি এবং গোলাম রাব্বানীকে সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। একই দিন আওয়ামী লীগ সভাপতির ওপর অর্পিত ক্ষমতাবলে প্রধানমন্ত্রী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের কমিটিও অনুমোদন করেন।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads