• মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬
ads
ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকারের অবহেলা নেই : হানিফ

কুষ্টিয়ায় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও মাহবুব-উল আলম হানিফ কুষ্টিয়ায় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও মাহবুব-উল আলম হানিফ গড়াই নদীর ওপর কুমারখালী যদুবয়রা সংযোগ সেতুর উদ্বোধন করেন

ছবি : বাংলাদেশর খবর

রাজনীতি

ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকারের অবহেলা নেই : হানিফ

  • কুষ্টিয়া প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকারের কোন অবহেলা নেই, মানুষের সচেতনতার ঘাটতি রয়েছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া সদর আসনের সংসদ সদস্য মাহবুব-উল-আলম হানিফ এমপি।

রোববার (১৫ সেপ্টেম্বর) কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের ডেঙ্গু ওয়ার্ড পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন হানিফ।

তিনি বলেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকারের কোন অবহেলা নেই, ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকার সর্বদা চেষ্টা চালাচ্ছে, মানুষের সচেতনতার ঘাটতি রয়েছে। মানুষকে আরও সচেতন করতে হবে। 

এ সময় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাক্তার নুরুন নাহার বেগম, কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন ডাক্তার রওশানারা বেগম, কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডাক্তার মুসতানজিদ, ডা. এস এম মুসা কবির, ডাঃ রতন কুমার পাল উপস্থিত ছিলেন।

হানিফ আরো বলেন, সারা দেশে সরকারের পক্ষে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সেই নির্দেশনায় কাজ চলমান থাকায় ইতিমধ্যেই ঢাকাসহ বড় বড় শহরে ডেঙ্গু রোগী কমে এসেছে, কিন্তু জেলা পর্যায়ে উদ্বেগজনক অবস্থায় পৌঁছেছে।

জেলা পর্যায়ে মানুষের সচেতনতার ঘাটতি রয়েছে। এ নিয়ে সরকারের নির্দেশে স্থানীয় পর্যায়ে সকল প্রশাসন একসাথে কাজ করছে। আশা করছি অল্প কিছুদিনের মধ্যেই ডেঙ্গু পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে।

প্রসঙ্গত, কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে বর্তমানে ৭৯ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এখন পর্যন্ত পুরো জেলায় মোট ৯৪৯ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে।

রোববার বিকালে কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার পাঁচ ইউনিয়নের মানুষের দীর্ঘ প্রতিক্ষিত গড়াই নদীর ওপর কুমারখালী যদুবয়রা সংযোগ সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে সমাবেশে কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী- খোকসা) আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম জর্জের সভাপতিত্বে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ সেতুর নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।

বক্তব্য রাখেন, কুষ্টিয়া-১ (দৌলতপুর) আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট আ. ক. ম. সরওয়ার জাহান বাদশাহ্। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও কুষ্টিয় জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হাজী রবিউল ইসলাম, কুষ্টিয়া জেলা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব সদর উদ্দিন খান, কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী, কুমারখালী উপজেলা চেয়ারম্যান ও কুমারখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুল মান্নান খান। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কুমারখালী পৌরসভার মেয়র ও কুমারখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শামছুজ্জামান অরুন।

গড়াই নদীর ওপর নির্মিত কুমারখালী-যদুবয়রা সংযোগ সেতুর নির্মাণ বাস্তবায়নকারী সংস্থা কুষ্টিয়া স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর কাজ করছে। ৮৯ কোটি ৯১ লক্ষ ৩৫ হাজার ৫৯১ টাকা ব্যায়ে ৬৫০ মিটার দৈঘ্য পিসি গার্ডার সেতুটি ওয়াকওয়েসহ ৯ দশমিক ৮০ মিটার চওড়া করা হবে। এ ছাড়াও সেতুটির দুই পাড়ে মোট ৮০০ মিটার দৈঘ্য এপ্রোচ সড়ক নির্মাণ করা হবে। নেশনটেক কমিউনিকেশন লিমিটেড ও রানা বিল্ডার্স যৌথভাবে সেতুটির নির্মাণ কাজ করছে। ২০১৯ সালের ১৭ এপ্রিল কাজের ওয়ার্ক অর্ডার পেয়ে ইতোমধ্যে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান টেস্ট পাইলিংয়ের কাজ শুরু করেছে। ২১ সালের ২৫ অক্টোবর সেতুটির নির্মাণ কাজ সমাপ্তির কথা রয়েছে।গড়াই নদীতে সেতুটি নির্মাণ হলে কুমারখালী উপজেলার সাথে ঝিনাইদহ মাগুরার দূরত্ব কমেবে এবং গড়াই নদীতে বিভক্ত কুমারখালীর পাঁচ ইউনিয়নের মানুষের দীর্ঘ দিনের দূর্ভোগ কমবে বলে এলাকাবাসী মনে করে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads