• বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬
ads
খোকাকে আব্বাসের ‘ভালোবাসার চিঠি’

সংগৃহীত ছবি

রাজনীতি

খোকাকে আব্বাসের ‘ভালোবাসার চিঠি’

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ৩১ অক্টোবর ২০১৯

বিএনপির দুই শীর্ষ নেতা সাদেক হোসেন খোকা ও মির্জা আব্বাস। অবশ্য তাদের মিলনের চেয়ে বিরোধের খবরই আসত বেশি। সেই খোকার গুরুতর অসুস্থতার খবর জেনে তাকে নিয়ে আবেগময় ভাষায় একটি চিঠি লিখেছেন মির্জা আব্বাস।

নিউইয়র্কে ক্যানসারের সঙ্গে লড়তে থাকা খোকার জন্য লেখা এই চিঠি নিজের ফেসবুক পাতায় তুলেছেন মির্জা আব্বাস। ‘প্রিয় খোকা’-কে লেখা চিঠিতে নিজেদের দূরত্বের কথা যেমন লিখেছেন মির্জা আব্বাস তেমনি আবার একসঙ্গে পথচলার আশার কথাও বলেছেন।

মির্জা আব্বাস একসময় ঢাকা মহানগর বিএনপির সভাপতি ছিলেন, পরে সেই স্থানে আসেন খোকা। ঢাকার একসময়ের মেয়র ছিলেন মির্জা আব্বাস, পরে খোকাও মেয়র হন। বিএনপিতে দুজনের বিরোধ নানা সময়ই ছিল আলোচিত। মির্জা আব্বাস এখন বিএনপির স্থায়ী কমিটিতে রয়েছেন। অন্যদিকে ভাইস চেয়ারম্যান খোকা নানা মামলা ও দণ্ড মাথায় নিয়ে কয়েক বছর আগে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমানোর পর আর দেশে ফেরেননি।

যুক্তরাষ্ট্রে ক্যানসারের চিকিৎসা নিচ্ছিলেন খোকা; এখন তার অবস্থা গুরুতর বলে খবর এসেছে। আর তা শুনেই মির্জা আব্বাসের এই চিঠি। মির্জা আব্বাস লিখেছেন, ‘প্রিয় খোকা, এই মাত্র আমি খবর পেলাম যে, তোমার শরীর খুব খারাপ। তুমি হাসপাতালে শয্যাশায়ী। জানার পর থেকে আমার মানসিক অবস্থা যে কতটা খারাপ, এই কথাটুকু কারো সঙ্গে শেয়ার করব, সেই মানুষটা পর্যন্ত আমার নেই। তুমি-আমি একসঙ্গে রাজনীতি করেছি, অনেক স্মৃতি আমার চোখের সামনে এই মুহূর্তে ভাসছে।’

নিজেদের বহুল আলোচিত বিরোধ নিয়ে মির্জা আব্বাস লিখেছেন, ‘তোমার আর আমার দীর্ঘ এই পথচলায় কেউ কেউ তাদের ব্যক্তি স্বার্থে তোমার আর আমার মাঝে একটা দূরত্ব তৈরি করে রেখেছিল। তবে তুমি আর আমি কেউই সেই দূরত্ব রয়েছি বলে আমি কখনোই মনে করিনি।’

খোকার পাশে না থাকতে পারার আক্ষেপ প্রকাশ করে মির্জা আব্বাস লিখেছেন, ‘আমি জানি না, তোমার সঙ্গে আমার আর দেখা হবে কি না? আমার এই লিখাটি তোমার চোখে পড়বে কি না বা তুমি দেখবে কি না, তাও আমি জানি না। তবে বিশ্বাস কর, তোমার শারীরিক অসুস্থতার কথা জানবার পর থেকেই বুকের ভেতরটা কেন যেন ভেঙে আসছে। আমি বারবার অশ্রুসিক্ত হচ্ছি। মহান আল্লাহতায়ালার কাছে দুই হাত তুলে তোমার জন্য এই বিশ্বাস নিয়ে দোয়া করছি-তিনি অবশ্যই তোমাকে সুস্থ করে আমাদের মাঝে ফিরে আনবেন।’

খোকার আরোগ্য কামনা করে চিঠির ইতি টেনেছেন মির্জা আব্বাস, ‘তুমি আর আমি কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে, বুকে বুক মিলিয়ে রাজনীতির মাঠে কাজ করে যাব। না হয় সেই আগের মতোই স্বার্থপর কোনো মানুষদের জন্য আব্বাস আর খোকা বাইরে বাইরে দূরত্বের সেই অভিনয়টা করে যাবে, আর ভেতরে থাকবে দুজনের প্রতি দুজনের অন্তর নিংড়ানো ভালোবাসা। আল্লাহ তোমার সুস্থতা দান করুক। তুমে ফিরে এসো খোকা, তুমি ফিরে এসো। আমি অপেক্ষায় থাকব।’

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads