• শনিবার, ১১ এপ্রিল ২০২০, ২৮ চৈত্র ১৪২৬
ads
এত অপরাজনীতির প্রয়োজন ছিল না : নাছির

ফাইল ছবি

রাজনীতি

এত অপরাজনীতির প্রয়োজন ছিল না : নাছির

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো
  • প্রকাশিত ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে মনোনয়ন না পাওয়ার জন্য দলের ভেতরে ষড়যন্ত্র হয়েছে বলে দাবি করেছেন আ জ ম নাছির উদ্দীন। আমাকে বললে মেয়র পদ এমনিতেই ছেড়ে দিতাম। এত মিথ্যাচার, অপপ্রচার ও অপরাজনীতির তো কোনো দরকার ছিল না। গতকাল দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব বলেন।

এখনো মেয়রের পাশাপাশি চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন নাছির। তবে এবার তিনি মেয়র হিসেবে নির্বাচনের জন্য দলীয় মনোনয়ন পাননি। এ বিষয়ে বলেন, মনোনয়ন না পাওয়ায় তার মধ্যে কোনো ক্ষোভ, হতাশা, দুঃখ, বেদনা, আক্ষেপ, কষ্ট নেই। শুধু কষ্ট পেয়েছেন বঙ্গবন্ধুর খুনির আত্মীয়র সঙ্গে তার ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ায়, যা শতভাগ মিথ্যা।

আওয়ামী লীগের রাজনীতিকে ইবাদত হিসেবে নিয়েছি। জীবনের ঝুঁকি নিয়েছেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবার হত্যার পর প্রতিবাদ করেছি। স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলন, চট্টগ্রামের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিবিরমুক্ত করার আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছি। রাজনীতি করতে গিয়ে আলোচনা-সমালোচনারও শিকার হয়েছি।

আমার কাছে মেয়র পদটা বড় নয়। রাজনীতিটা বড়। কেউ যদি এসে আমাকে বলতেন, মেয়র পদ থেকে সরে যাও, আমি ছেড়ে দিতাম। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে রাজনীতি করার পরও জাতির পিতার খুনিদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে জড়িয়ে বিরুদ্ধে মিথ্যাচার, অপপ্রচার, অপরাজনীতি করা হয়েছে। তবে  নতুন করে আমার পরীক্ষা দেওয়ার কিছু নেই। 

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে বিএনপির এম মনজুর আলমকে হারিয়ে মেয়র হয়েছিলেন নাছির। এবার ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৯ মার্চ চসিক নির্বাচন হবে। এবার নাছিরের বদলে মেয়র পদে মনোনয়ন পেয়েছেন নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম চৌধুরী। চট্টগ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা ও মন্ত্রী-এমপিদের অনেকের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়ানোর পর তাদের তুমুল বিরোধিতার কারণে নাছির মনোনয়ন বঞ্চিত হয়েছেন বলে অনেকে মনে করেন। তবে নাছির বলেছেন, মনোনয়ন না পাওয়ায় তিনি হতাশ নন। চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম চৌধুরীকে জেতাতে তিনি জীবন বাজি রেখে কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন।

চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সভাপতি আলী আব্বাসে সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন  প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, বিএফইউজের সহ-সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, সিইজের সভাপতি মোহাম্মদ আলী ও সাধারণ সম্পাদক ম শামসুল ইসলাম, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি কলিম সরওয়ার, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মহসীন চৌধুরী, বর্তমান কমিটির সদস্য কাজী আবুল মনসুর এবং সিইউজের সাবেক সভাপতি শহীদ উল আলম। সঞ্চালনা করেন প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads