• বৃহস্পতিবার, ৪ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
পিস্তল-গুলিসহ মন্ত্রীর গানম্যান গ্রেপ্তার

ছবি: বাংলাদেশের খবর

রাজনীতি

পিস্তল-গুলিসহ মন্ত্রীর গানম্যান গ্রেপ্তার

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১৭ এপ্রিল ২০২০

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক এমপির গানম্যান কিশোর চন্দ্র সরকারকে গ্রেপ্তার করেছে করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার দুপুরে ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানার শিমুলিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। এসময় তার কাছ থেকে তার ব্যবহৃত পিস্তল ও ৬ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন মজুমদার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, শুক্রবার দুপুরে ঢাকা জেলার আশুলিয়া থানার শিমুলিয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঘাতক কিশোর সরকারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এসময় তার কাছ থেকে তার ব্যবহৃত পিস্তল ও ৬রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে নেশাগ্রস্থ হয়ে বা পূর্বপরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করা হয়েছে । ঘটনার তদন্ত চলছে।

এর আগে, গাজীপুরের কালিয়াকৈরে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক এমপির গানম্যান কিশোর চন্দ্র সরকারের গুলিতে মো. শহিদ মিয়া (৩০) নামে এক যুবক ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। এসময় অন্য আরেক যুবক গুলিবিদ্ধ হয়। 

জানা যায়, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক এমপির গানম্যান কিশোর সরকার (৩৫) কালিয়াকৈর উপজেলার কুতুবদিয়া গ্রামের নারায়ণ সরকারের ছেলে। নিহত শহিদ ও গুলিবিদ্ধ মহিম গানম্যান কিশোরের ঘনিষ্ঠ বন্ধু । মন্ত্রীর গানম্যান কিশোর কুমার ও হতাহতরা পরস্পর বন্ধু হওয়ায় প্রায়ই তারা একসঙ্গে আড্ডা দিত ও নেশা করতো বলে স্থানীয়রা জানায়। বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১০টার দিকে কুতুবদিয়া-আজগানা সড়কের পশ্চিম পাশে উপজেলার কুতুবদিয়ায় এলাকায় জনৈক লায়ন হাবিবের পতিত জমিতে বসে তারা আড্ডা দেয় এবং নেশা করে। পূর্বপরিকল্পিতভাবে অথবা নেশাগ্রস্ত অবস্থায় কিশোর নিজের কাছে থাকা পিস্তল দিয়ে শহিদ ও মহিমকে গুলি করেছে বলে পুলিশ ধারনা করছে। এতে শহিদের বুকের ডান পাশে গুলি লাগে এবং ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। অপর যুবক মহিমের পেটের বাম পাশে গুলি লাগে। গুলির শব্দ পেয়ে এলাকাবাসী ছুটে আসলে ঘাতক কিশোর দৌঁড়ে পালিয়ে যায় বলে স্থানীয়রা জানান। খবর পেয়ে কালিয়াকৈর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শহীদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজ উদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। আহত মহিমকে উদ্ধার করে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহত শহীদের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে মন্ত্রীর গানম্যান কিশোরকে আসামি করে কালিয়াকৈর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, গুলিবিদ্ধ মহিম কিশোরের নিকট টাকা পায়। টাকা দেয়ার কথা বলে কিশোর ওই দিন রাতে মহিমকে ওই স্থানে দেখা করতে বলে। মহিম বন্ধু শহীদকে সাথে নিয়ে কিশোরের সাথে দেখা করতে একটি মোটর সাইকেল যোগে ঘটনাস্থলে যায়। এসময় কিশোর পুর্ব পরিকল্পিতভাবে তাদের উপর গুলি ছুড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই শহীদ নিহত ও মহিম গুলিবিদ্ধ হয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেতে তিনটি গুলি উদ্ধার করেছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads