• মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
তৌফিক ইমরোজ খালিদীর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাকিংয়ের শিকার

তৌফিক ইমরোজ খালিদীর ভেরিফায়েড ফেইসবুক পেইজ

সংরক্ষিত ছবি

সোশ্যাল মিডিয়া

তৌফিক ইমরোজ খালিদীর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাকিংয়ের শিকার

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ১২ জুলাই ২০১৮

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রধান সম্পাদক তৌফিক ইমরোজ খালিদীর ফেসবুক অ্যাকাউন্টের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ব্যক্তিগত তথ্য চুরির চেষ্টা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। রাজধানীর বনানী থানায় করা একটি সাধারণ ডায়েরিতে বলা হয়েছে, হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে কেউ ফেইসবুকের ব্যক্তিগত তথ্য পেয়ে থাকলে তা অপরাধমূলক ক্ষতিকর কাজে ব্যবহার করা হতে পারে বলে তিনি আশঙ্কা করছেন।

বনানী থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মো. সাইহান ওলিউল্লাহ বলেন, ‘অভিযোগটি সাধারণ ডায়েরি হিসেবে নথিভুক্ত করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।’

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রধান সম্পাদকের পক্ষে একজন প্রতিবেদক বুধবার রাতে থানায় ওই সাধারণ ডায়েরি করেন। জিডির নম্বর ৬৮৮। সাধারণ ডায়েরিতে বলা হয়, ৯ জুলাই মধ্যরাতের পর রাত ১২টা ১৬ মিনিটে তৌফিক ইমরোজ খালিদী ফেইসবুক সিকিউরিটি টিমের কাছ থেকে একটি মেইল পান। তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে (http://facebook.com/toufique.khalidi) অস্বাভাবিক লগইনের বিষয়ে সতর্ক করা হয় সেখানে।

ওই ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি তৌফিক ইমরোজ খালিদীর ভেরিফায়েড ফেসবুক পেইজের (https://www.facebook.com/t.i.khalidi/ এবং https://www.facebook.com/bdnews24/) সঙ্গে যুক্ত। তিনি বলছেন, যে ব্রাউজার থেকে ফেইসবুকে লগইন করার কথা মেইলে বলা হয়েছে, সেটি তিনি ব্যবহার করেন না। একই সময়ে ফেইসবুক সিকিউরিটি টিম আরেকটি ই-মেইলে জানায়, তৌফিক ইমরোজ খালিদীর ফেইসবুক পাসওয়ার্ড বদলে দেওয়া হয়েছে। আর এ কাজে তার ব্যক্তিগত ফোন নম্বর ব্যবহার করা হয়েছে।

কেউ পাসওয়ার্ড বদলাতে চাইলে ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ তার মোবাইল ফোনে একটি ভেরিফিকেশন কোড পাঠিয়ে নিশ্চিত হতে চায় যে আসল ব্যবহারকারীই পাসওয়ার্ড রিসেট করতে চাইছেন। ব্যবহারকারী ওই কোড ছাড়া পাসওয়ার্ড বদলাতে পারেন না।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী বলছেন, তিনি পাসওয়ার্ড রিসেট করার কোনো চেষ্টা ওই সময় করেননি। যে ফোন নম্বর ব্যবহার করে পাসওয়ার্ড বদলানোর কথা মেইলে বলা হয়েছে, সেটি তার হাতেই ছিল এবং সেখানে কোনো ভেরিফিকেশন কোডও তিনি পাননি।

‘লগ ইন’ অ্যালার্ট পাঠানোর দুই মিনিট পর ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আরেকটি ই-মেইলে জানায়, ফেইসবুক অ্যাকাউন্টের সব তথ্যের কপির জন্য তৌফিক ইমরোজ খালিদীর কাছ থেকে একটি অনুরোধ তারা পেয়েছে। অথচ ওই কপি তিনি ফেইসবুক কর্তৃপক্ষের কাছে চাননি বলে উল্লেখ করা হয়েছে জিডিতে।

এরপর রাত সোয়া ১টায় ফেসবুক কর্তৃপক্ষের পাঠানো আরেকটি ই-মেইলে বলা হয়, ফেইসবুক অ্যাকাউন্টের যাবতীয় তথ্য ডাউনলোড করার জন্য তৈরি আছে। কীভাবে ডাউনলোড করা যাবে সেই নির্দেশনাও সেখানে দেওয়া হয়।

সর্বশেষ ই-মেইলটি পাওয়ার কয়েক মিনিট আগে তৌফিক ইমরোজ খালিদী তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড আবার বদলে নেন। কিন্তু তার আগেই ফেসবুক অ্যাকাউন্টের যাবতীয় তথ্য কেউ ডাউনলোড করে ফেলেছে কি না- সে বিষয়ে তিনি নিশ্চিত নন। বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের একজন মুখপাত্র বলেন, এ ঘটনায় দুজন বিশেষজ্ঞের সঙ্গে কথা বলেছেন তারা। দুজনেই বলেছেন, হ্যাকিংয়ের কাজটি যেভাবে হয়েছে বলা হচ্ছে, তাতে মনে হয়, তৌফিক ইমরোজ খালিদীর সিম কার্ডটি স্বল্প সময়ের জন্য বন্ধ রেখে অন্য কেউ সিমের একটি ক্লোন সে সময় ব্যবহার করেছে। আসল সিম নিষ্ক্রিয় থাকলে তৌফিক ইমরোজ খালিদী কোনো ভেরিফিকেশন কোড পাবেন না। কিন্তু ক্লোন সিম যার হাতে থাকবে, সে ঠিকই ভেরিফিকেশন কোড পেয়ে পাসওয়ার্ড বদলে নিতে পারবে।

সংশ্লিষ্ট মোবাইল ফোন অপারেটরের লগ দেখলেই বিষয়টি স্পষ্ট হবে বলে মত দিয়েছেন দুই বিশেষজ্ঞ।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads