• বুধবার, ২২ মে ২০১৯, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
ফেসবুকের আয় কমেছে ৫১ শতাংশ

ছবি : সংগৃহীত

সোশ্যাল মিডিয়া

ফেসবুকের আয় কমেছে ৫১ শতাংশ

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ২৮ এপ্রিল ২০১৯

তথ্যের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থতার অভিযোগে মার্কিন ফেডারেল ট্রেড কমিশনের (এফটিসি) রেকর্ড জরিমানার মুখোমুখি হতে যাচ্ছে ফেসবুক। সম্ভাব্য এ জরিমানার অর্থ পরিশোধে ৩০০ কোটি ডলার আলাদাভাবে সরিয়ে রেখেছে প্রতিষ্ঠানটি। যে কারণে চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্টটির নিট আয় ৫১ শতাংশ কমে ২৪৩ কোটি ডলারে দাঁড়িয়েছে। অথচ গত বছরের প্রথম প্রান্তিকে নিট আয় ছিল ৪৯৯ কোটি ডলার। তবে নিট আয় কমলেও রাজস্ব বৃদ্ধির খবরে ফেসবুকের শেয়ারদর বেড়েছে ৮ শতাংশ।

গত বছরের শুরুর দিকে ফেসবুকের ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা কেলেঙ্কারি ফাঁস হওয়ার পরই এফটিসি তদন্ত শুরু করেছিল। ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগণ তথ্যের সুরক্ষা নিয়ে মার্কিন সরকারের সঙ্গে ২০১১ সালে স্বাক্ষরিত চুক্তি লঙ্ঘনকে ইস্যু ধরে এ তদন্ত কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

রাজনৈতিক পরামর্শক ও তথ্য বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা ফেসবুকের ৮ কোটি ৭০ লাখ গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করে নিয়েছে, এমন তথ্য ফাঁস হওয়ার পর তীব্র সমালোচনার মুখে পড়ে প্রতিষ্ঠানটি। এ ঘটনার পর ব্যবসা গুটিয়ে নেয় ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা। তবে ফেসবুককে এর চেয়েও বড় মূল্য চুকাতে হয়। অর্থ ও সুনাম দুই দিক থেকেই মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয় প্রতিষ্ঠানটি।

এদিকে এফটিসির জরিমানা পরিশোধের জন্য অর্থ আলাদা করে রাখায় প্রথম প্রান্তিকে ফেসবুকের সামগ্রিক ব্যয় আকাশচুম্বী হয়ে উঠেছে। গত বছরের প্রথম প্রান্তিকে ফেসবুকের মোট ব্যয় ছিল ৬৫২ কোটি ডলার, যা চলতি বছরের একই প্রান্তিকে ৮০ শতাংশ বেড়ে ১ হাজার ১৮০ কোটি ডলারে পৌঁছেছে।

ফেসবুকের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, এফটিসির চলমান তদন্তের ধারাবাহিকতায় সম্ভাব্য জরিমানা পরিশোধে প্রথম প্রান্তিকে রেকর্ড ৩০০ কোটি ডলার আলাদাভাবে রেখে দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি এখনো সমাধান হয়নি। আমরা ধারণা করছি, এ বিষয়কে কেন্দ্র করে ৩০০ থেকে ৫০০ কোটি ডলার লোকসান হতে পারে।

তবে নিট আয় কমে গেলেও রাজস্ব বেড়েছে ফেসবুকের। গত বুধবার কোম্পানিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, প্রথম প্রান্তিকে তাদের মোট রাজস্ব ২৬ শতাংশ বেড়ে ১ হাজার ৫০৮ কোটি ডলারে পৌঁছেছে। গত বছরের একই প্রান্তিকে যা ছিল ১ হাজার ১৯৭ কোটি ডলার।

অন্যদিকে ফেসবুকের জরিমানার অঙ্কটি যত বড়ই হোক না কেন, শেয়ারবাজারে কোম্পানিটির অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে না যে বিনিয়োগকারীরা একে খুব একটা পাত্তা দিচ্ছেন। প্রথম প্রান্তিকের আর্থিক খতিয়ান প্রকাশের পর বুধবার লেনদেন শুরুর দিকে ফেসবুকের শেয়ারদর ৬ দশমিক ২ শতাংশ বেড়ে ১৯৩ দশমিক ৮৫ ডলারে পৌঁছায়। পরবর্তী পর্যায়ে তা প্রায় ৮ শতাংশ বাড়ে।

ফেসবুকের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মার্ক জাকারবার্গ প্রথম প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন বিষয়ে বলেন, আমরা খুবই চমৎকার একটি প্রান্তিক শেষ করেছি এবং আশা করছি অগ্রগতির এ ধারা অব্যাহত থাকবে।

বিশ্বব্যাপী এখন ১৫৬ কোটি মানুষ প্রতিদিন সক্রিয়ভাবে ফেসবুক ব্যবহার করছেন, যা গত বছরের তুলনায় ৮ শতাংশ বেশি। পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটির মাসভিত্তিক সক্রিয় ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৮ শতাংশ বেড়ে ২৩৮ কোটিতে পৌঁছেছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads