• রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads

ফুটবল

নাপোলির সঙ্গে ব্যবধান কমাল জুভেন্টাস

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ২৩ জানুয়ারি ২০১৮

ইতালির সিরি-এতে দুই ঘোড়ার লড়াই চলছে। পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে থাকা নাপোলির সঙ্গে সমান তালে লড়ছে জুভেন্টাস। সোমবার রাতে জেনোয়ার বিপক্ষে ১-০ গোলের ব্যবধানে জিতেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। তাতে টেবিলের শীর্ষে থাকা দলটির সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান কমিয়ে নিয়ে এসেছে।

এই ম্যাচে জয়ের ফলে ২১ ম্যাচে ৫৩ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে আছে জুভেন্টাস। সমান ম্যাচে ৫৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে নাপোলি। বাকিরা তাদের আশেপাশেও নেই। তৃতীয় স্থানে থাকা এক ম্যাচ কম খেললেও অর্জন করেছে মাত্র ৪৩ পয়েন্ট। আর চতুর্থ স্থানে থাকা ইন্টার মিলানের ২১ ম্যাচেও ৪৩ পয়েন্ট। জেনোয়া ২১ পয়েন্ট নিয়ে ১৫তম স্থানে রয়েছে।

মৌসুমের মধ্যকালীন বিরতির পর প্রথম ম্যাচ খেলতে নামে জুভেন্টাস। নিজেদের মাঠ অ্যালিয়াঞ্জ স্টেডিয়ামে নিচের সারির দল জেনোয়াকে স্বাগত জানায়। পূর্ণ তিন পয়েন্ট পাওয়ার জন্য অনেক ঘাম ঝরাতে হয়েছে ম্যাসিমিলিয়ানো আলেগ্রির শিষ্যদের। ম্যাচের শুরুর দিকে ডগলাস কোস্টার একমাত্র গোল তাদের জয়ের পাথেয়।

জুভেন্টাস এই ম্যাচেও দলের সর্বোচ্চ গোল স্কোরার পাউলো ডিবালা মাঠে নেমেছে। অন্যদিকে, জেনোয়া গোলরক্ষক পেরিন দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছেন। হিগুয়েইন, মানজুকিচদেরকে বারবার গোল বঞ্চিত করেছেন।

এদিকে জেনোয়া টানা চার ম্যাচ অপরাজিত থাকার পর জুভেন্টাসের মাটিতে খেলতে এসেছে। মৌসুমের শুরুর ম্যাচটিতে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে শুরুতে দুই গোলের লিড নিয়েছিল। যদিও সেই ম্যাচটিতে ৪-২ গোলের ব্যবধানে হেরেছিল। কিন্তু এদিনও তারা অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী ছিল।

তবে ম্যাচের ১৬ মিনিটে ডগলাস কোস্টা আন্দ্রে বার্তেলাসসিকে কাটিয়ে মানজুকিচকে বল পাঠান। দ্রুতগতিতে জেনোয়ার রক্ষণভাগকে পেছনে ফেলে ডি বক্সের মধ্যে ঢুকে পড়েন। মানজুকিচও তাকে বল ফেরত পাঠান। গোলরক্ষকের ঠিক হাতে সামনে থেকে বলটি টোকা দিয়ে জালে জড়িয়ে দেন ব্রাজিলীয় তারকা।

প্রথমার্ধে এককভাবে দাপট দেখায় জুভেন্টাস। কিন্তু আর কোনো গোলের দেখা মেলেনি। দ্বিতীয়ার্ধে উভয় দলই প্রচেষ্টা চালালেও সফল হতে পারেনি। জুভেন্টাসের অ্যালেক্স সান্দ্রো ও সানিচ খুব কাছ থেকে শট নিয়ে লক্ষ্য পূরণ করতে পারেননি। অন্যদিকে আর্জেন্টাইন তারকা গঞ্জালো হিগুয়েইনকে গোলবঞ্চিত করেন জেনোয়া ডিফেন্ডার আরমান্দো ইজ্জো।

জেনোয়ার বিপক্ষে জুভেন্টাস তাদের অপরাজিত থাকার রেকর্ড আরো বৃদ্ধি করল। সিরি-এতে ১৯৯১ সালের পর থেকে নিজেদের মাঠে দলটির বিপক্ষে কখনো হারের মুখ দেখেনি বিয়ানকোনেরিরা। ১১টি জয়ের সঙ্গে ড্র করেছে তিনটি ম্যাচে।

চলতি মৌসুমে এই নিয়ে তৃতীয়বারের মতো জেনোয়ার বিপক্ষে জয়ের দেখা পেল জুভেন্টাস। সিরি-এতে জয় ছাড়াও গত ডিসেম্বরে কোপা ইতালিয়া থেকে দলটিকে বিদায় করে দেয় ইতালির জায়ান্টরা।

ম্যাচ শেষে জুভেন্টাস কোচ মাসিমিলিয়ানো আলেগ্রি বলেছেন, ‘নাপোলির সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হলে প্রতিটি ম্যাচে জয়ই গুরুত্বপূর্ণ। এটা আমাদের জন্য একটি চ্যালেঞ্জ। টানা সপ্তমবারের মতো লিগ শিরোপা জেতা সত্যিই বিশেষ কিছু।’

ম্যাচ শেষে কস্তা বলেছেন, ‘আমি মনে করি এটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ গোল ছিল। দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচ আরো কঠিন হয়ে উঠে। আমরা শুধু আমাদের নিয়ে চিন্তা করেছি ও গোল ধরে রাখার চেষ্টা করেছি।’

 

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads