• বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads

ফুটবল

রেফারির ভুল স্বীকার

  • স্পোর্টস ডেস্ক
  • প্রকাশিত ০৬ মে ২০১৮

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ সেমিফাইনাল ম্যাচ পরিচালনা করেছেন রেফারি ডামির। রেফারি ডামির নাকি অলিম্পিকো স্টেডিয়ামে ম্যাচের পর ড্রেসিং রুমে ফিরে তার সহকারীদের সঙ্গে ম্যাচের বিতর্কিত অংশগুলোর ভিডিও দেখার পর তিনি নিজের ভুলের কথা স্বীকার করেন। এমনকি সহকারীদের বলেন, ‘আমরা সবকিছু গুলিয়ে ফেলেছিলাম।’

ফুটবল বিশ্লেষকরা স্বীকার করেছেন, তার ভুলেই দুটি পেনাল্টি পায়নি ইতালির ক্লাবটি। লাল কার্ড দেখানো হয়নি লিভারপুল গোলরক্ষক লরিস কারিউসকে। রোমার স্তেফান আল সারউইকে পা টেনে বক্সের মধ্যে ফেলে দেওয়ার পরেও। রেফারির সিদ্ধান্ত সপক্ষে গেলে কিয়েভে চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের বিরুদ্ধে হয়তো রোমাই খেলত।

স্বভাবতই এসবে সবচেয়ে ক্ষুব্ধ রোমা ক্লাব কর্তারা। তাদের প্রেসিডেন্ট জিম পালোত্তা থেকে শুরু করে স্পোর্টিং ডিরেক্টর মাঞ্চি, কার্যত সবাই ‘ভিএআর’-এর দাবিতে সরব হয়েছেন। উয়েফাও বিষয়টি নিয়ে নতুন করে ভাবছে বলে খবর।

স্লোভেনিয়ার রেফারি ডামির কিন্তু ফিফার ‘অভিজাত ম্যাচ পরিচালকদের’ একজন। শুধু তাই নয়, রাশিয়াতে প্রথমবার তাকে বিশ্বকাপের ম্যাচে রেফারির ভূমিকায় দেখা যাবে। অবশ্য অতীতেও তিনি বার বার বিতর্কে জড়িয়েছেন। বলা হয়, যেকোনো ম্যাচেই তিনি অন্তত চারজনকে হলুদ কার্ড দেখাবেনই। রুশ লিগে একবার একটি ম্যাচে তিনি দশজনকেও হলুদ কার্ড দেখিয়েছিলেন। একটি সূত্রের খবর, অলিম্পিকো স্টেডিয়ামের ঘটনার পর বিশ্বকাপে সম্ভবত তাকে গুরুত্বপূর্ণ কোনো ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হবে না। পরিস্থিতি অন্তত যাচ্ছে সেদিকেই।

এদিকে সুর নরম করেও এদিন রোমা প্রেসিডেন্ট পালোত্তা আবার সেই ‘ভিএআর’ প্রসঙ্গই তুলেছেন। তিনি বলেছেন, ‘চ্যাম্পিয়নস লিগের মতো টুর্নামেন্টের ফাইনালে ওঠার জন্য লিভারপুলকে অভিনন্দন। কিন্তু ‘ভিএআর’ এখনই ভীষণ রকম দরকার ফুটবলে। বিশেষ করে ইউরোপের সেরা টুর্নামেন্টে। রোমে আমরা ভুগেছি। হতে পারে কিয়েভে ফাইনালে লিভারপুল বা রিয়াল মাদ্রিদ ভুগবে। ‘ভিএআর’ ছাড়া এক সময় ফুটবল খেলাটাই প্রহসনে পরিণত হয়। আমাদের ক্ষেত্রেও সেটাই হয়েছে।’

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads