• মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০১৯, ১২ চৈত্র ১৪২৪
ads
বাংলাদেশের কাছে হারা কাতার এশিয়ার সেরা

এশিয়া কাপের শিরোপা ট্রফি নিয়ে কাতার দলের উল্লাস

ছবি : ইন্টারনেট

ফুটবল

বাংলাদেশের কাছে হারা কাতার এশিয়ার সেরা

  • স্পোর্টস ডেস্ক
  • প্রকাশিত ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

খুব বেশি দিন হয়নি। গত বছরের আগস্ট মাসের ঘটনা। ইন্দোনেশিয়ায় এশিয়ান গেমস ফুটবলে কাতারকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠেছিল বাংলাদেশ। সেই কাতার মাত্র ৫ মাসের ব্যবধানে পরল এশিয়া সেরার মুকুট। শুক্রবার রাতে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপের ফাইনালে কাতার ৩-১ গোলে জাপানকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়। মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি এই প্রথম উঠেছে ফাইনালে। প্রথমবারই তাদের বাজিমাত। ২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজক কাতার। আয়োজক হিসেবে দেশটি সরাসরি খেলবে বিশ্বকাপে। এ নিয়ে অনেক সমালোচনা সইতে হয়েছে তাদেরকে। সব কিছুর মোক্ষম জবাব দিয়ে এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট ছিনিয়ে নিলেন কাতারের ফুটবলযোদ্ধারা।

নানা দিক দিয়ে এই শিরোপা কাতারের জন্য ছিল চ্যালেঞ্জ। বিশেষ করে এশিয়া কাপের আয়োজক সংযুক্ত আরব আমিরাত হওয়ায়। দেশটির সঙ্গে রাজনৈতিক বৈরিতা আছে কাতারের। তারপর আবার সেমিফাইনালে স্বাগতিকদের হারিয়ে ফাইনালে উঠেছিল কাতার। তাই তো ফাইনালে গ্যালারিভর্তি দর্শক ছিল কাতারের বিপক্ষে; কিন্তু সব প্রতিকূলতা দূর করে কাতার দেখিয়ে দিল তারাই এশিয়ার সেরা। তারাই বিশ্বকাপ আয়োজনের যোগ্য।

ম্যাচে ফেভারিট ছিল জাপানই। ফিফা র্যাঙ্কিংয়ে ৪৩ ধাপ এগিয়ে থাকা জাপানিদের বিপক্ষে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে চলতি আসরে দুর্দান্ত খেলা কাতার।

১২ মিনিটে ২২ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড আলময়েজ আলির গোলে এগিয়ে যায় কাতার। এক আসরে সর্বোচ্চ ৯ গোল করার রেকর্ড এখন আলময়েজের দখলে। ২৭ মিনিটে ব্যবধান বাড়ান আবদুল আজিজ হাতেম। ২-০ গোলে এগিয়ে থেকে প্রথমার্ধ শেষ করা কাতারের জন্য জয়টা হয়েছিল সময়ের ব্যাপার। তবে ৬৯ মিনিটে তাকুমি গোল করে ব্যবধান কমালে লড়াইয়ের আভাস ফিরেছিল জায়েদ স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়ামে। তবে ৮৩ মিনিটে পেনাল্টি থেকে আকরাম আফিফ গোল করলে চ্যাম্পিয়ন হওয়া নিশ্চিত হয় কাতারের।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads