• শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬
ads

ফুটবল

বাংলাদেশের কাতার পরীক্ষা

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১০ অক্টোবর ২০১৯

শক্তির ব্যবধানে রাজ্যের তফাত। র্যাঙ্কিংটাও চোখ রাঙাচ্ছে রীতিমতো। ফিফা ফুটবল র্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ যেখানে ১৮৭তম, সেখানে কাতারের অবস্থান ৬২। ২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজকও তারা। যে বিশ্বকাপে স্বাগতিকের সুবিধায় সরাসরি খেলবে দলটি। এমন দলের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ঠিক কতটা লড়াই করতে পারবে, তা নিয়ে আছে ঢের সন্দেহ। তবে স্বাগতিক বাংলাদেশ ঘরের মাঠে সেরাটা দিতে মরিয়া।

২০২২ কাতার বিশ্বকাপ ও ২০২৩ সালের এশিয়ান কাপের বাছাইয়ের দ্বিতীয় রাউন্ডে আজ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে কাতারের বিপক্ষে ‘ই’ গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা ৭টায়। সরাসরি সম্প্রচার করবে বিটিভি ও বাংলা টিভি।

ম্যাচটি অনেকের চোখে অসম। তবে বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূইয়া সব চাপ সামলে ম্যাচটি উপভোগের নির্দেশনা দিয়েছেন। ২৩ জনের চূড়ান্ত দলে অনেকেই বয়সে তরুণ। বিপলু আহমেদ, রবিউল হাসান, রিয়াদুল ইসলাম, মতিন মিয়া, সাদউদ্দিন-এসব তরুণ সতীর্থদেরকে বার্তা দিলেন জামাল, ‘তরুণ খেলোয়াড়দের প্রতি আমাদের উপদেশ, মাঠে যাও, নার্ভাস হবে না, খেলাটা উপভোগ করো এবং সুযোগটা কাজে লাগাও।’

আফগানিস্তানকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে বাছাইয়ের দ্বিতীয় রাউন্ড শুরু করা কাতার নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ভারতের সঙ্গে ড্র করেছিল। অন্যদিকে আফগানিস্তানের কাছে ১-০ গোলে হেরে দ্বিতীয় রাউন্ড শুরু করে বাংলাদেশ।

অবশ্য কাতার ম্যাচের জন্য অনুপ্রেরণা পাওয়ার মতো অতীত আছে বাংলাদেশের। যদিও তা অনূর্ধ্ব-২৩ পর্যায়ে, তবে ২০১৮ সালে ইন্দোনেশিয়ার এশিয়ান গেমসে কাতারের বিপক্ষে ১-০ গোলের জয়টা নিশ্চিতভাবেই দারুণ কিছু। একমাত্র গোলটি করেছিলেন জামাল।

বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচটি অগ্নিপরীক্ষা হতে যাচ্ছে এবং আক্রমণাত্মক খেলা কাতারের বিপক্ষে সুযোগও কম মিলবে মানছেন জামাল। এই অল্প স্বল্প সুযোগ কাজে লাগানোর দিকে দৃষ্টি তার, ‘কাতার এশিয়ার নাম্বার ওয়ান দল। আগামীকালের (আজ) কঠিন ম্যাচের দিকে তাকিয়ে আছি আমরা। আমাদের সুযোগগুলো নিতে হবে। যদি এ ম্যাচেও সুযোগ পাই শট নেওয়ার; নিশ্চিতভাবেই গোল পাওয়ার জন্যই শট নিব। কিন্তু কালকের ম্যাচটা আগের চেয়ে আরো কঠিন হবে। আমরা খুব বেশি সুযোগ পাব না কিন্তু যেটা পাব, সেটা কাজে লাগাতে হবে। তা না হলে তারা আমাদের শাস্তি দেবে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে আমরা সুযোগ পেয়েছিলাম কিন্তু কাজে লাগাতে পারিনি। কাতার ম্যাচে আমরা একই ভুল করতে পারি না।’

বাংলাদেশ অতীতে কাতার ছাড়াও অস্ট্রেলিয়া, জাপান, ইরান, সংযুক্ত আরব আমিরাত, জর্ডান, উজবেকিস্তান, দক্ষিণ কোরিয়া, সৌদি আরব, সিরিয়া, কুয়েত, চীন, উত্তর কোরিয়ার মতো এশিয়ার শীর্ষ পর্যায়ের প্রতিপক্ষের বিপক্ষে একাধিকবার মাঠে নেমেছে। এই দলগুলোর বিপক্ষে বাংলাদেশ বেশ কয়েকবার বড় ব্যবধানে হারলেও কোনো কোনো ম্যাচে জোর লড়াই করেছে। এখনো পর্যন্ত এশিয়ার শীর্ষ পর্যায়ের কোনো দলের বিপক্ষে জয়ের রেকর্ড না থাকলেও বড় দলগুলোর সঙ্গে খেলার অভিজ্ঞতা খুব একটা কম নেই বাংলাদেশের। সে হিসেবে আজ কাতারের বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাই পর্বের ম্যাচটি বড় ধরনের পরীক্ষা হলেও এটি আরো একবার এশীয় পর্যায়ে নিজেদের অবস্থান বুঝে নেওয়ার সুযোগই বাংলাদেশের কাছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads