• শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ads

ফুটবল

রোনালদোর অভাব!

  • স্পোর্টস ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১১ অক্টোবর ২০১৯

বর্তমান ফুটবল বিশ্বের সেরা দুই খেলোয়াড় ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো এবং লিওনেল মেসি। মাঠের ভেতর তাদের মধ্যে যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা, মাঠের বাইরে যেন ঠিক তার উল্টো। দুজনই জানান একে অন্যের প্রতি সম্মান ও ভালোবাসার কথা।

২০১৭-১৮ মৌসুম পর্যন্তও স্পেনের ফুটবলে একই লিগে খেলে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতেন মেসি ও রোনালদো। বার্সেলোনার হয়ে ভূরি ভূরি গোল করতেন মেসি আর সেসবকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ জানাতেন রিয়ালের হয়ে খেলা রোনালদো।

কিন্তু গত মৌসুমেই বদলে যায় সবকিছু। হুট করেই রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে ইতালিয়ান ক্লাব জুভেন্টাসে চলে যান রোনালদো। ফলে স্পেনে একাই রয়ে যান মেসি। অথচ তিনি চেয়েছিলেন রোনালদো যেন রিয়ালেই থেকে যান।

ইতালিতে চলে গেলেও যেকোনো সাক্ষাৎকারে মেসিকে ভোলেন না রোনালদো। তেমনি চির প্রতিদ্বন্দ্বীকে এখনো মিস করেন মেসি। এক সাক্ষাৎকারে মেসি বলেন, ‘আমি চেয়েছিলাম রোনালদো যেন রিয়ালেই থেকে যায়। এল ক্লাসিকো এবং লা লিগায় রোনালদোর উপস্থিতি প্রতিদ্বন্দ্বিতাটা আরো জমজমাট করত।’ তবে রোনালদো না থাকলেও রিয়াল মাদ্রিদ যে শক্তি প্রতিপক্ষ তা মনে করিয়ে দিতে ভোলেননি মেসি। তার ভাষ্যে, ‘রিয়াল এখনো চ্যালেঞ্জ জানাতেই থাকবে কারণ তাদের দলে অনেক ভালো খেলোয়াড় আছে। তবে যেটা বললাম, এই দলটা অবশ্যই রোনালদোর অভাব অনুভব করবে, কারণ সে দলের জন্য অনেক বড় কিছু ছিল। কিন্তু রিয়ালে এখন অনেক খেলোয়াড় আছে যারা শিরোপার জন্য লড়তে পারে।’

নেইমারকে নিয়ে ভাবনা : এ বছরের গ্রীষ্মকালীন দল-বদলে যথেষ্ট উত্তাপ ছড়ালেও কাঙ্ক্ষিত ঠিকানা বার্সেলোনায় ফিরতে পারেননি পিএসজির তারকা ফরোয়ার্ড নেইমার। প্যারিস ছাড়তে মরিয়া ব্রাজিলের এই ফুটবলার ন্যু ক্যাম্পে না এলে আরেক স্প্যানিশ ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দিতে পারেন বলে ভেবেছিলেন বার্সেলোনার অধিনায়ক লিওনেল মেসি। ২০১৭ সালে রেকর্ড ২২ কোটি ২০ লাখ ইউরো ট্রান্সফার ফিতে প্যারিসে পা রাখা ফুটবলার নেইমার নিজেও ক্লাব ছাড়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। কয়েক দফায় আলোচনার পরও পিএসজির সঙ্গে সমঝোতায় পৌঁছাতে পারেনি লা লিগা চ্যাম্পিয়নরা। মেসি বলেন, ‘আমি সত্যি ভেবেছিলাম, আমাদের এখানে না এলে নেইমার রিয়াল মাদ্রিদে যাবে। সে সত্যি প্যারিস ছাড়তে চেয়েছিল। আর এটা সে প্রকাশও করেছিল।’

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads