• রবিবার, ১৪ আগস্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯
কানাডায় পরিত্যক্ত স্কুলে মিলল ২১৫ শিশুর দেহাবশেষ

সংগৃহীত ছবি

উত্তর আমেরিকা

কানাডায় পরিত্যক্ত স্কুলে মিলল ২১৫ শিশুর দেহাবশেষ

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ৩০ মে ২০২১

 

ডেস্ক রিপোর্ট হ

কানাডার পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য ব্রিটিশ কলম্বিয়ার কামলুপস এলাকার একটি পরিত্যক্ত আবাসিক স্কুলভবন থেকে ২১৫ জন আদিবাসী রেড ইন্ডিয়ান শিশুর মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। উদ্ধার হওয়া এই দেহাবশেষগুলোর মধ্যে ৩ বছর বয়সি শিশুদের দেহাবশেষও আছে।

গত শুক্রবার কানাডার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে এই খবর প্রকাশ হওয়ার পর দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এই ঘটনাকে গভীর শোকাবহ ও হূদয়বিদারক বলে উল্লেখ করেছেন। 

এক টুইটবার্তায় জাস্টিন ট্রুডো বলেন, ‘কামলুপসে শিশুদের দেহাবশেষ উদ্ধারের সংবাদে আমার হূদয় ভেঙে গেছে। আমাদের দেশের ইতিহাসের অন্ধকার ও লজ্জাজনক অধ্যায়ের একটি নমুনা এই ঘটনা। আমার ধারণা এই দেশের বেশির ভাগ মানুষের মানসিক অবস্থাও এখন আমার মতোই। আমরা সব সময় দেশের আদিবাসীদের পাশে আছি।’

কানাডার কামলুপস এলকাটি রেড ইন্ডিয়ানদের বিভিন্ন গোত্রঅধ্যুষিত। যে শিশুদের মরদেহ উদ্ধার হয়েছে তারা সবাই সেখানকার টিকেমলুপস টে সেকওয়েপেমেক গোত্রভুক্ত ছিল বলে জানিয়েছেন সেই গোত্রের বর্তমান প্রধান রোসান্নে ক্যাসিমির।

গত শুক্রবার এক বিবৃতিতে ক্যসিমির জানান, ‘মৃতদের মধ্যে ৩ বছর বয়সি শিশুদেরও মরদেহ পাওয়া গেছে। এটা এমন এক দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা যা কল্পনা করতেও গা শিউরে ওঠে এবং আরো দুঃখজনক হলো এ ধরনের নিপীড়নের ঘটনাগুলোর কোথাও লিপিবদ্ধ হয়নি।’

দেশটির ইতিহাস ঘাটলে দেখা যাবে, রেড ইন্ডিয়ানদের খ্রিস্টধর্মে ধর্মান্তকরণ ও ‘অধিকতর সভ্য’ করে তুলতে উনিশ শতকের মাঝামাঝি থেকে কানাডাজুড়ে বিভিন্ন আবাসিক স্কুল প্রতিষ্ঠা করা শুরু করে ইউরোপীয় সেটলাররা। প্রায় দেড় লক্ষাধিক রেড ইন্ডিয়ান, ইনুইট ও মেটিস জাতিগোষ্ঠীর শিশুদের জোর-জবরদস্তি করে ভর্তি করা হয়েছিল আবাসিক স্কুলগুলোতে। স্কুলগুলোতে ভর্তি হওয়া শিশুদের ব্যাপকভাবে শারীরিক ও যৌন নির্যাতন করা হতো বলে অভিযোগ রয়েছে।

রোসান্নে ক্যাসিমির জানান, কামলুপসের যে স্কুলটি থেকে এই দেহাবশেষগুলো উদ্ধার করা হয়েছে, সেটি ছিল ১৩৯টি আবাসিক স্কুলের মধ্যে সবচেয়ে বড়। স্কুলটিতে মোট শিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৪ হাজার ১০০ জন।

১৮৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল স্কুলটি। প্রতিষ্ঠার পর থেকে ১৯৬৯ সাল পর্যন্ত এটি পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন ক্যাথলিক খ্রিস্টান মিশনারিরা। তারপর কামলুপসের স্থানীয় কর্তৃপক্ষ স্কুল পরিচালনার দায়িত্ব নেয়। এর প্রায় ১০ বছর পর ১৯৭৮ সালে স্কুলটি বন্ধ করে দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads