• শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯
রেকর্ড ২২০৫ কোটি টাকা পরিচালন  মুনাফা সোনালী ব্যাংকের

সংগৃহীত ছবি

ব্যাংক

রেকর্ড ২২০৫ কোটি টাকা পরিচালন  মুনাফা সোনালী ব্যাংকের

  • প্রকাশিত ০৪ জানুয়ারি ২০২২

রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী ব্যাংকের শ্রেণীকৃত ঋণের পরিমাণ কমেছে ১২৭৭ কোটি টাকা। বর্তমানে ব্যাংকটির শ্রেণীকৃত ঋণের পরিমান নেমে এসেছে ১৪.১৪ শতাংশে যা ২০২০ শেষে ছিল ১৮.৩৭ শতাংশ।  অর্থাৎ গত এক বছরে শ্রেণীকৃত লোন কমেছে ৪.২৩ শতাংশ । বর্তমানে ব্যাংকটিতে শ্রেনীকৃত লোন আছে ৯৮০০ কোটি টাকা যা ২০২০ সাল শেষে ছিল ১০৭৬৭ কোটি টাকা ব্যাংকের সরবহরাহকৃত তথ্য অনুযায়ী, বিগত ২০২১ বছর শেষে রেকর্ড ২ হাজার ২০৫  কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা করেছে ব্যাংকটি। ২০২০ সাল শেষে ব্যাংকটির পরিচালন মুনাফা ছিল ২১৫৩ কোটি টাকা ।

এ বিষয়ে সোনালী ব্যাংকের সিইও এন্ড ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আতাউর রহমান প্রধান বলেন, করোনার প্রাদুভর্ব কাটিয়ে দেশের ব্যাংকিং খাত এগিয়ে যাচ্ছে। করোনা না থাকলে বিগত বছর শেষেই শেণ্রীকৃত ঋণ আমরা সিঙ্গিল ডিজিটে নামিয়ে আনতে পারতাম । আগামী বছর আমরা এটা সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে আনাই আমাদের লক্ষ্য।

তিনি বলেন, সোনালী ব্যাংকের এই সাফল্যে প্রমাণ করে ব্যাংকে এখন সুশাসন নিশ্চিত হয়েছে। তবে মুনাফা নয় গ্রাহক সন্তুটিই আমাদের মূল লক্ষ্য । ২০২১ সাল শেষে সোনালী ব্যাংকের মোট বিতরনকৃত ঋণ ও অগ্রীমের পরিমান দারিয়েছে ৬৯,৩১৭  কোটি টাকা যা ২০২০ সালে এর চেয়ে ১০৬৯৪ কোটি টাকা টাকা । বর্তমানে দেশের সবচেয়ে ডিপোজিট এখন সোনালী ব্যাংকের। গত বছরে মোট ৮৪২৮ কোটি টাকা ডিপোজিট বেড়েছে। বর্তমানে ব্যাংকটিতে মোট ডিপোজিট রয়েছে ১৩৪৩০৭। এই বিপুল ডিপোজিটকে ব্যবহার করতে পারলে ব্যাংকটি আগামী দিনগুলোতে সব সূচকে আরো ভাল করবে বলে মনে করেন ব্যাংকের শীর্ষস্থানীয় কর্মকমর্তারা। ইনভেস্টমেন্টও গত বছর শেষে দাড়েয়েছে ৭১৮৪৯ কোটি টাকা যা ২০২০ সালের চেয়ে ৪৮১২ কোটি টাকা বেশী।

ব্যাংকের এই সার্বিক সাফল্য সম্পর্কে সোনালী ব্যাংকের চেয়ারম্যান জিয়াউল হাসান সিদ্দিকী বলেন করোনার এই প্রাদুর্ভব কাটিয়ে ব্যাংকাররা সততা ও নিষ্ঠার সাথে ব্যাংকের জন্য কাজ করেছেন বলেই এই সময়ে প্রায় সব সূচকে সোনালী ব্যাংক ভাল করতে পেরেছে । জীবনের ঝুকি নিয়ে সরকারি ব্যাংকের কর্মকর্তার-কর্মচারীরা অফিস করেছেন এই করোনাকালীন সময়ে । তিনি যোগ করেন ২০২১ শেষে সোনালী ব্যাংকের রফতানি পরিমান ছিল ৩১৫৬ কোটি টাকা যা আগের বছরে ছিল ২৫১৭ কোটি টাকা অর্থাৎ গত বছরে ব্যাংকের মোট রফতানি বেড়েছে ৬৩৯ কোটি টাকা । এছাড়া ২০২১ সালে ব্যাংকের মোট আমদানির পরিমান ছিল ৩০৮৭২ কোটি টাকা যা ২০২০ সাল থেকে ১৪৩০৬ কোটি টাকা বেশি। এছাড়া ব্যাংকের মোট লোকসানির শাখাও কমেছে ১৩টি। বর্তমানে লোকসানি শাখার সংখ্যা ২৯ থেকে নেমে ১৬ টিতে এসেছে। সোনালী ব্যাংকের দেশের অভ্যন্তরে মোট ১২২৭টি শাখা আছে  এছাড়া দেশের বাইরে ভারতের কলকাতা ও শিলিগুড়িতে আর দুটি শাখা আছে।    সূত্র: বিজ্ঞপ্তি

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads