• রবিবার, ১৪ আগস্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯
সাটুরিয়ায় সপ্তাহের ব্যবধানে পেঁয়াজ কেজিতে বেড়েছে ২০ টাকা

প্রতিনিধির ছবি

পণ্যবাজার

সাটুরিয়ায় সপ্তাহের ব্যবধানে পেঁয়াজ কেজিতে বেড়েছে ২০ টাকা

  • সাটুরিয়া (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১৩ মে ২০২২

ভোজ্যেতেলের সংকট কাটতে না কাটতে আবার পেঁয়াজের বাজার অস্থির হয়ে পরেছে।সপ্তাহের ব্যবধানে সাটুরিয়া হাটে ১৫ টাকা থেকে ২০ টাকা কেজিতে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম।পেঁয়াজ কিনতে আসা ক্রেতারা পেঁয়াজ দাম বৃদ্ধি নিয়ে বাকবিতর্ক শুরু করে বিক্রেতাদের সাথে।বিক্রেতারা জানায় আমদানী না হলে পাগলা ঘোড়ার মতো পেঁয়াজের দাম আবারও বাড়বে।

বৃস্পতিবার সাটুরিয়া হাটে আসা ক্রেতাদের কাছে আগাম বার্তা না থাকায় পেঁয়াজ কিনতে একশ্রেণির মানুষ বাজারে হুমড়ি খেয়ে পেঁয়াজ কিনছে।ক্রেতারা মনে করেন, হাট বাজারের মনিটনিং সেল না থাকায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

বৃস্পতিবার সাটুরিয়া হাটে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,পেঁয়াজ কিনতে গিয়ে পেঁয়াজ না কিনে ব্যাগ হাতে নিয়ে হতাশ হয়ে দাঁড়িয়ে আছে ক্রেতারা। গত সপ্তাহে ৩০ টাকা থেকে ৩৫ টাকায় ১ কেজি পেঁয়াজ কিনেছেন ক্রেতারা। আর এক সপ্তাহের ব্যবধানে সেই পেঁয়াজের দাম হয়েছে ৪৫ থেকে ৫০ টাকা। এছাড়া সব ধরণের শাক সবজির দামও দ্বিগুন হারে বেড়েছে। ৫০ টাকার নিচে কোন সবজি পাওয়া যায় না বলে ক্রেতারা জানান।

এদিকে সাটুরিয়া হাট থেকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় পেঁয়াজ পাইকারি বিক্রি করা হয়। ওই পেয়াজ ভোক্তাদের কাছে পৌছিয়ে দিতে আরো কেজি প্রতি ৫ টাকা বেশি দরে বিক্রি করেন খুচরা ব্যবসায়ীরা।

সাটুরিয়া বাজারের ব্যবসায়ী পেঁয়াজ ব্যবসায়ী মো. আওলাদ হোসেন বলেন, দেশি পেয়াজ গত সপ্তাহে ৩০ থেকে ৩৫ টাকা দরে বিক্রি করেছি। এ সপ্তাহে পেয়াজের আমদানী না হওয়ায় দেশি পেয়াজ ৪৫ থেকে ৫০ টাকা দরে বিক্রি করছেন।

ব্যবসায়ী হৃদয় সাহা জানান, বাজারে ভারতের পেয়াজ আমদানী না থাকায় দেশি পেঁয়াজের মূল্যে বেড়ে গেছে। পেঁয়াজের আমদানি না হলে দাম আরো বৃদ্ধি পাবে বলে জানান।
হাটে আসা ক্রেতা করিম মিয়া ও খালেক হোসেন বলেন, হঠাৎ পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় ক্রেতারা ক্ষুদ্ধ। তারা মনে করেন বড় বড় আড়ৎদারদের কারসাজিতে হুটহাট করে পণ্যের দাম বেড়ে যায়। কিন্তু পাইকার ও ডিলার যেভাবে তৈল সংকট তৈরী করেছিল ঠিক একইভাবে হাটছে পেয়াজ ব্যবসায়ীরা। আমদানী বন্ধ হলেও দেশি পেয়াজের দাম বাড়বে কেন? এমন প্রশ্ন তুলেছেন ক্রেতারা।

সাটুরিয়ার ইউএনও শারমিন আরা বলেন, হাট বাজার মনিটরিং কমিটি আছে কি না আমার জানা নেই। না থাকলে নতুন করে হাট বাজার মনিটরিং কমিটি নতুন করে করা হবে বলে তিনি জানান।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads