• রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ৯ কার্তিক ১৪২৭
বিএনপির প্রার্থী ইউনুসের উপর হামলা, প্রার্থী ও ছেলেসহ আহত ১০

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

সারা দেশ

কুমিল্লা-৫ আসন

বিএনপির প্রার্থী ইউনুসের উপর হামলা, প্রার্থী ও ছেলেসহ আহত ১০

  • খায়রুল আহসান মানিক, কুমিল্লা জেলা প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২৮ ডিসেম্বর ২০১৮

কুমিল্লা- ৫ (বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়া) আসনের বিএনপির মনোনীত প্রার্থী অধ্যক্ষ মো. ইউনুস গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার নিসমার এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণাকালে হামলা শিকার হয়েছেন। এসময় হামলাকীরা প্রার্থীর ব্যবহৃত গাড়ী ভাংচুর করে। হামলায় প্রার্থী নিজে ও তার ছেলেসহ ১০ জন আহত হয়েছে।

অধ্যক্ষ ইউনুস এর নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্নয়ক বিশ দলীয় ঐক্য জোটের আহ্বায়ক মোঃ কবির হোসেন জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে অধ্যক্ষ ইউনুস একটি গাড়ী নিয়ে বুড়িচং উপজেলার মোকাম ইউনিয়নের নিমসার বাজার এলাকায় নির্বাচনী প্রচারনায় যান। তিনি স্থানীয় একটি মসজিদে জোহরের নামাজ আদায় শেষে গাড়ীতে উঠতে আসেন। এসময় ৩০/৩৫ জনের একটি দল লাঠি/সোটা নিয়ে তার উপর অতর্কিত হামলা চালায় এসময় হামলাকারীরা গাড়ীটি ব্যাপক ভাংচুর করে। এতে গাড়ীর ভিতরে থাকা প্রার্থীর ছেলে ডাঃ মেহেদী হাসান সুমন, উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি সুয়া মিয়া মেম্বার, যুবদল নেতা আমিনুল ইসলাম, রাকিব হাসান, অধ্যক্ষ ইউনুছের গাড়ির চালক আলমগীর হোসেনসহ কমপক্ষে ১০জন আহত হন। তার মধ্যে প্রার্থীর ছেলে মেহেদী হাসান মাথায় গুরুতর ভাবে আঘাত প্রাপ্ত হন। হামলাকারীরা চলে গেলে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠায়। খবর পেয়ে বুড়িচং থানার অফিসার ইনচার্জ আকুল চন্দ্র বিশ্বাস ও দেবপুর ফাঁড়ী পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

এ বিষয়ে মোকাম ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মাসুদ রানা জানান, ওই এলাকায় আমাদের পূর্বে কিন্তু বিএনপি একই স্থানে একই সময়ে উঠান বৈঠক করার চেষ্টা করলে এ ঘটনা ঘটে।

ওই স্থানে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর পক্ষে উঠান বৈঠকের কোনো কর্মসূচি ছিল না দাবি করে অধ্যক্ষ ইউনুছ বলেন, আমরা উঠান বৈঠক করতে গেলে যুবলীগ-ছাত্রলীগ হামলা চালিয়ে নেতাকর্মীদের আহত করে।

বুড়িচং থানার ওসি আকুল চন্দ্র বিশ্বাস জানান, খবর পেয়ে আমি দ্রুত ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে হামলাকারী কাউকে পাওয়া যায়নি। ঘটনাস্থল থেকে অধ্যক্ষ ইউনুছকে তার কুমিল্লাস্থ বাসায় নিয়ে আসি। সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ করেনি, অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

পরে রাদ সাড়ে ৭ টায় অধ্যক্ষ ইউনুস তার তালপুকুরস্থ বাসায় এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবদুল মতিন খসরুর নির্দেশে এমন বর্বর হামলা চালানো হয়। আমি প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ করবো এ ঘটনায় সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানাই।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads