• শনিবার, ২২ জানুয়ারি ২০২২, ৮ মাঘ ১৪২৮
নাটোর হাসপাতালের কার্নিশে মিলল নবজাতকের মৃতদেহ

প্রতীকী ছবি

সারা দেশ

নাটোর হাসপাতালের কার্নিশে মিলল নবজাতকের মৃতদেহ

  • নাটোর প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১১ ডিসেম্বর ২০২০

নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালের মা ও প্রসূতি ওয়ার্ডের জানালার কার্নিশের ওপর থেকে একদিন বয়সী এক নবজাতকের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়। ওই নবজাতকের মা সুইটি বেগম নিজেই সন্তানকে জানালা দিয়ে বাইরে ফেলে দেন। তবে পরিবারের দাবী, নবজাতকটি ভূমিষ্ঠ হবার পরই তার মৃত্যু হয়। তাই সে নাটোর সদর উপজেলার লেংগোরিয়ার গ্রামের রাজিব হোসেনের স্ত্রী।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শুক্রবার সকালে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগী ও তাদের লোকজন শিশু ও মেডিসিন ওয়ার্ডের জানালার কার্নিশে এক নবজাতকের মৃতদেহ দেখতে পেয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানায়। এসময় কর্মরত ওই ওয়ার্ডে কর্মরত সেবিকাদের কাছে জানতে চাইলে তারা কিছুই জানে না বলে জানায়। পরে চিকিৎসকরা পুলিশে খবর দেন । পুলিশ আসার পর মরদেহ উদ্ধারের পর তারা তদন্ত শুরু করে। একপর্যায়ে ওই মেসিডিন ওয়ার্ডে সুইটি নামে চিকিৎসাধীন মহিলা সন্তানটি তার বলে পুলিশের কাছে প্রাথমিকভাবে স্বীকার করে।

হাসপাতাল পরিচালক ডা. আনসারুল হক জানান, ধারণা করা হচ্ছে রাতের কোনো এক সময় শিশুটিকে ফেলে দিয়েছে তার স্বজনরা। শুক্রবার সকালে অন্যন্য রোগীর লোকজন বিষয়টি দেখে তাদের খবর দেয়। এ ঘটনায় সেবিকারা ওয়ার্ডে শিশুটি সম্পর্কে জানতে চাইলে কেউ কিছু জানাতে পারেনি । পরে পুলিশে খবর দেয় চিকিৎসকেরা।

নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালের পরিচালক ডা. আনসারুল হক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, মানসিক সমস্যা নিয়ে সুইটি নামে ওই মহিলা হাসপাতালে ভর্তি হন। বৃহস্পতিবার রাতের কোনো এক সময় তিনি বাথরুমে গিয়ে মৃত শিশুর জন্ম হয়। এসময় তিনি জানালা দিয়ে বাইরে ফেলে দেন। ঘটনাটি তদন্ত পুর্বক দায়িত্ব পালনে অবহেলার জন্য দায়িত্বরত সেবিকাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

নাটোর সদর থানার অফিসার ইনজার্চ (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম জানান, পুলিশ পাঠানো হয়েছে তদন্ত চলছে। এবিষয়ে এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ দেননি, অভিযোগ পেলে আইনগত ভাবে ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads