• বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮
'টয়লেটের পর সাবান ব্যবহার করেন না প্রজেক্ট হিলসার বাবুর্চিরা'

ছবি: বাংলাদেশের খবর

সারা দেশ

'টয়লেটের পর সাবান ব্যবহার করেন না প্রজেক্ট হিলসার বাবুর্চিরা'

  • মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১৭ জুন ২০২১

মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়াঘাটের অদূরে ইলিশ মাছের আদলে নির্মিত বহুল আলোচিত  ‘প্রজেক্ট হিলসা’ রেস্তোরাঁয় অভিযান চালিয়েছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। ইলিশের আদলে তৈরি স্থাপনার কারণে রেস্তোরাঁটি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে দ্রুত পরিচিতি পায়। তবে পরিচিতির কয়েক দিনের মধ্যেই খাবারের দাম আর সার্ভিস চার্জ নিয়ে ক্রেতাদের মাঝে সৃষ্ট হয় অসন্তোষ।

এই অসন্তোসের মধ্যে রেস্তারাঁটিতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর বুধবার দুপুরে অভিযান চালায়। এ সময় ধরা পরে নানা অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার চিত্র। অভিযানে রেস্তোরাঁটির বাবুর্চি ও কর্মচারিরা ট্য়লেট এবং কিচেন রুমে একই সেন্ডেল ব্যবহার,টয়লেটের পর সাবান ব্যবহার না করা এবং বিএসটিআইয়ের অনুমোদন ছাড়া বিপুল পরিমাণ নুডুলস ও সস ফ্রিজে সংরক্ষনসহ বেশকিছু ত্রুটি পাওয়া গেছে বলে ভোক্তা অধিকার সূত্র জানাগেছে।

এ বিষয়ে মুন্সিগঞ্জ জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক আসিফ আল আজাদ বৃহস্পতিবার বিকাল ৬ টার দিকে বলেন, বুধবার দুপুরে রেস্তোরাটিতে অভিযান চালানো হয়। রেস্তোরাঁটিতে দেখা যায়, অনেকগুলো টয়লেট রয়েছে। অতিথিদের জন্য সাবানের ব্যবস্থা থাকলেও বাবুর্চি ও স্টাফদের টয়লেটে কোনো সাবান পাওয়া যায়নি। তারা খালি পানি দিয়েই হাত ধুয়ে থাকেন। তারা টয়লেড ও কিচেনে একই স্যান্ডেল ব্যাবহার করে থাকেন। এটা করা যাবে না।
তিনি আরও বলেন, এছাড়া বিদেশ হতে আমদানিকৃত বিপুল পরিমান নুডুলস ও সস তাদের ফ্রিজে পাওয়া গেছে যেগুলোর ‘বিএসটিআইয়ের অনুমোদন নাই। এসব পণ্যের আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের মোড়কে কোন নাম বা লোগোর ব্যবহার নাই।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads