• শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৭ কার্তিক ১৪২৭
লকডাউনে ক্ষতির মুখে মৌসুমি ফল ব্যবসায়ীরা

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

সারা দেশ

লকডাউনে ক্ষতির মুখে মৌসুমি ফল ব্যবসায়ীরা

  • প্রদীপ রায় জিতু, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর)
  • প্রকাশিত ০৬ জুলাই ২০২১

একদিকে বৃষ্টি অন্যদিকে বৈশিক মহামারি করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে সরকার ঘোষিত সাত দিনের কঠোর লকডাউনে ক্রেতাশূন্য ফুটপাতের মৌসুমি ফলের দোকানগুলো। উপজেলা প্রশাসনের কঠোর অবস্থানের কারণে অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছেন না সাধারণ মানুষ। এর ফলে ভোক্তার অভাব আর ফল পচনের কারণে ক্ষতির মুখে পড়েছে বেশির ভাগ ফল ব্যবসায়ী। সরকারি আর্থিক সহয়তা না পেলে পথে বসতে হতে পারে বলে তাদের এমনটি জানিয়েছেন বেশিরভাগ মৌসুমি ফল বিক্রেতারা।

পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের বলাকা মোড় মৌসুমি আম বিক্রেতা আইয়ুবুর ইসলাম বলেন, কোনো কাজ না থাকায় ১৫শ টাকা দরে হাড়িভাঙা আম কিনে বিক্রির জন্য দীর্ঘসময় ধরে বসে আছি। কঠোর লকডাউনের কারণে ক্রেতাশূন্য থাকায় আম বিক্রি নেই। লকডাউনের চারদিনে অনেক আম পচন ধরেছে। তাই লাভের আশা ছেড়ে দিয়ে এখন আসল টাকা তুলতেই কম দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। ফল ব্যবসায়ী সাজু বলেন, অটোরিকশা চালিয়ে সংসার চলে তার। বর্তমানে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য মূল্যের ঊর্ধগতিতে অটোরিকাশা চালিয়ে স্বল্প আয়ের সংসারে অভাব নিত্যসঙ্গী। তাই বাড়তি আয়ের আশায় এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে ফুটপাতে আমের দোকান দিয়েছি। স্থানভাবে ৪০ টাকা কেজি দরে আম কিনে ৪০ টাকায় বিক্রির জন্য ক্রেতা খুঁজে পাওয়াটা কষ্টের। লকডাউনে ক্রেতা না থাকায় বাড়তি লাভ তো দূরের কথা এখন মূলধন নিয়ে টানাটানি।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads