• শুক্রবার, ২১ জানুয়ারি ২০২২, ৭ মাঘ ১৪২৮

সারা দেশ

কেরানীগঞ্জে 'গরু চুরি করে' ধরা খেলেন কৃষকলীগ নেতা

  • কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১৪ জানুয়ারি ২০২২

গরু চুরির পর জবাই করে মাংস ভাগ বাটোয়ারার অভিযোগে মো: জনি (৫০) নামে কৃষকলীগের এক নেতাকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের বীর বাঘৈর এলাকায়।

জনি নিজেকে ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ) কৃষকলীগের প্রচার সম্পাদক বলে পরিচয় দিতেন। 

এ ঘটনায় গরুর মালিক জনিসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন। সেই মামলায় জনিকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। শুক্রবার ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন জানিয়ে জনিকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

গরুর মালিক ফুল মিয়া জানান, বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির সামনে গরুটি বাধা ছিল। গরুটি সবার অগোচরে প্রতিবেশী জনি তার টিনঘেরা বাড়িতে নিয়ে যান।বিকেলে দিকে ফুল মিয়ার মেয়ে রেশমা ওই বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় হৈচৈ শুনে বাড়ির ভেতর উঁকি দেন। রেশমা বাথরুমে ভেতরে রক্ত ও গরুর চামড়া দেখে নিজেদের গরু বলে চিনতে পারে। ঘটনাটি রেশমা এলাকাবাসীকে জানালে উত্তেজিত জনতা জনির বাড়িতে হামলা করে ও তাকে গনপিটুনি দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।এলাকাবাসীর অভিযোগ জনি বিভিন্ন সময় লোকজনের নিকট সে পুলিশের এসআই, র‍্যারের অবসরপ্রাপ্ত এসআই, আবার সেনাবাহিনীর সদস্য ছিলেন বলে নিজেকে পরিচয় দিয়ে মানুষের সাথে প্রতারণা ও ভয় ভিত্তি প্রদর্শন করতেন। 

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) খালিদুর রহমান জানান, জনিসহ ৪ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা ২ জনকে আসামী করে ফুল মিয়া মামলা করেছেন। সেই মামলায় জনিকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরও জানান, জনি মূলত একজন প্রতারক। কখনো উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা, আবার কখনো রাজনৈতিক বড় নেতা পরিচয় দিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করতো সে।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads