• বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯
জনদুর্ভোগের আরেক নাম বগুড়া-চন্দনবইশা সড়ক

প্রতিনিধির ছবি

সারা দেশ

জনদুর্ভোগের আরেক নাম বগুড়া-চন্দনবইশা সড়ক

  • আমজাদ হোসেন মিন্টু, বগুড়া
  • প্রকাশিত ১৬ মে ২০২২

বগুড়ার চন্দনবাইশা সড়ক দুর্ভোগের অপর নাম হয়ে উঠেছে। খানাখন্দক ও বড় বড় গর্তের কারণে চলাচলে অযোগ্য হয়ে পড়া এই সড়ক দিয়ে যানবাহন ও পথ চলাচলে ভোগান্তি চলছে মাসের পর মাস ধরে। গর্ভবতী নারী ও গুরুতর অসুস্থরা এই সড়ক দিয়ে চলতে পারেন না। এই সড়কের বগুড়া সদর অংশের প্রায় সাড়ে ৩ কি. মি মেরামতের জন্য স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ (এলজিইডি) থেকে দরপত্র ও ঠিকাদার নির্ধারণ করা হলেও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের অবহেলায় লোকজনের দুর্ভোগ বেড়েই চলছে। জানুয়ারি মাসে এটির কার্যাদেশ দেওয়া হলেও সড়ক মেরামত হয়নি। কাজ শুরু করার পরেই ঠিকাদার চলে যায়। সড়কের কয়েকটি জায়গায় লোকজন প্রতিবাদ হিসাবে রাস্তার গর্তে ধান ও কচুঁ লাগিয়েছেন।

বগুড়া-চন্দনবাইশা সড়কটি গোলাবাড়ি সড়ক হিসাবেও পরিচিত। শহরের কৈপাড়া এলাকা থেকে এই সড়কের প্রায় আড়াই কিলোমিটার বগুড়া পৌরসভার আওতায়। পৌরসভার এই অংশও চলাচল অযোগ্য ও খানাখন্দকে ভরা। বর্ষা মৌসুমের সুচনায় ইতোমধ্যে কাদাপানিতে গোটা সড়ক একাকার। গর্তে পড়ে দুর্ঘটনাও ঘটছে। পৌরসভার বাইরের অংশে বগুড়া সদর উপজেলার মধ্যে এই সড়কের প্রায় সাড়ে ৩ কি. মি সড়ক মেরামত কাজের টেন্ডার হয় চলতি বছর।

এলজিইডি বগুড়ার নির্বাহী প্রকৌশলী গোলাম মোর্শেদ জানান, টেন্ডারে কাজ পান মেসার্স শুকরা এন্টারপ্রাইজের আব্দুল মান্নান আকন্দ। কাজের তদারককারী উপজেলা প্রকৌশলী মাহবুবুল হক জানান, এই কাজের কার্যাদেশ দেওয়া হয়েছিল জানুয়ারি মাসে। নির্বাহী প্রকৌশলী জানিয়েছেন, মে মাসের মধ্যে কাজটি শেষ হওয়ার কথা ছিল।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads