• সোমবার, ৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯
মরা খালে ফিরল যৌবন

ছবি: বাংলাদেশের খবর

সারা দেশ

মরা খালে ফিরল যৌবন

  • এস এম মিজান (গৌরনদী) বরিশাল
  • প্রকাশিত ০৬ জুন ২০২২

বরিশালে দুটি খাল পুনঃখনন করা হয়েছে। ফলে দীর্ঘ ৩০ বছর পর জেলার গৌরনদী উপজেলার প্রায় সাড়ে পাঁচ কিলোমিটারের দুটি মরা খালে এখন যৌবন ফিরে এসেছে। এ জন্য জেলার তিনটি উপজেলার কৃষকদের মাঝে স্বস্তি ফিরেছে। একই সঙ্গে খনন করা মাটি দিয়েই খালের দুপাশে নির্মিত হয়েছে বিশাল রাস্তা।

সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, ২০২১-২২ অর্থবছরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের মাধ্যমে গৌরনদী উপজেলার হোসনাবাদ ড্রেনেজ অ্যান্ড ইরিগেশন নামের একটি উপ-প্রকল্প গ্রহণ করে হোসনাবাদ পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি লিমিডেট। ওই প্রকল্পের মাধ্যমে জেলার গৌরনদী, বাবুগঞ্জ ও মুলাদী উপজেলার সীমান্তবর্তী সরিকল ইউনিয়নের আড়িয়াল খাঁ নদীর শাখা মিয়ারচর খাল ও কুড়িরচর গ্রামের মধ্য দিয়ে বয়ে যাওয়া মরা খাল খনন করা হয়। প্রায় সাড়ে পাঁচ কিলোমিটার খাল পুনঃখননে ব্যয় হয় ৬৫ লাখ টাকা। খাল দুইটি খনন হওয়ায় গৌরনদী উপজেলার সরিকল, হোসনাবাদ, মিয়ারচর, কুড়িরচর, নলগোড়াসহ বাবুগঞ্জ উপজেলার আগরপুর ইউনিয়নের জাহাপুর এবং সীমান্তবর্তী মুলাদী উপজেলার কয়েক হাজার কৃষক খুশি হয়েছেন। একাধিক কৃষক ও খাল পাড়ের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, খাল দুইটি দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে মরা ছিল। ফলে বোরো মৌসুমসহ রবি শষ্য চাষাবাদের জন্য প্রতিবছর কৃষকদের বৃষ্টির পানির জন্য অপেক্ষা করতে হতো। এতে অধিকাংশ কৃষিজমি অনাবাদী পরে থাকতো। নদীর সঙ্গে খালের সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকায় বন্যা কিংবা অতিবৃষ্টি হলে পানি নিষ্কাশন হতো না।

হোসনাবাদ পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি লিমিডেটের সভাপতি সোহরাব হোসেন জমাদ্দার বলেন, খালের পানি ব্যবহার করে চরাঞ্চলের কৃষক ধান এবং বিভিন্ন ধরনের শাক-সবজি আবাদ করতে পারবেন। এছাড়াও খাল খননের ফলে দেশীয় প্রজাতির মাছ বৃদ্ধি পাবে। এলজিইডির গৌরনদী উপজেলা প্রকৌশলী অহিদুর রহমান বলেন, খনন করা মাটি দিয়েই খালের দুইপাশে নির্মিত হয়েছে বিশাল রাস্তা। যেকারণে আগামীতে ওই এলাকার কৃষির প্রসার ঘটবে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads