• বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯
ফ্রি ফায়ার খেলা নিয়ে স্কুলছাত্রকে ছুরিকাঘাতে হত্যা

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

সারা দেশ

ফ্রি ফায়ার খেলা নিয়ে স্কুলছাত্রকে ছুরিকাঘাতে হত্যা

  • শরীয়তপুর প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ০৩ আগস্ট ২০২২

শরীয়তপুরের নড়িয়ায় মোবাইল ফোনে ফ্রি ফায়ার খেলাকে কেন্দ্র করে বাগবিতণ্ডার জেরে সিজান আকন (১৭) নামে এক স্কুলছাত্রকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দুই জন।মঙ্গলবার অনুমান রাত ৯টায় নড়িয়া পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম লোনসিং মাদবর বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সিজান ওই এলাকার বিল্লাল আকনের ছেলে। সে নড়িয়া বিহারী লাল উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। পুলিশ ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, নড়িয়া বিহারী লাল উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্র পশ্চিম লোনসিং গ্রামের বিল্লাল আকনের ছেলে সিজান আকন (১৭) বন্ধুদের নিয়েমঙ্গলবার রাতে মাদবর বাজার এলাকায় ফ্রি ফায়ার খেলছিল । এ সময় তার সঙ্গে ছিল স্থানীয় লাবিব ছৈয়াল (২৫), ইব্রাহিম জয় (২২), রাহিম হাওলাদার (২৪) ও নাহিম ছৈয়াল। খেলা নিয়ে সিজান ও লাবিবের সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে লাবিব সিজানকে বুকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে। এ সময় সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে । তার বন্ধু মুন্না ছৈয়াল ও আসিফ ব্যাপারী তাকে উদ্ধার করতে এগিয়ে আসলে তাদেরকে ও করে। স্থানীয় লোকজন এসে তাদেরকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাত সাড়ে ৯টায় সিজান আকনকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। আহত মুন্না ও আসিফ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।এ ঘটনায় ঐ রাতেই ইব্রাহিম জয় ও রাহিম হাওলাদারকে নড়িয়া থানা পুলিশ আটক করেছে।

নড়িয়া পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি মোতালেব বেপারী বলেন, লাবিব ছৈয়াল, ইব্রাহিম জয়, রাহিম হাওলাদার, নাহিম ছৈয়ালসহ কয়েকজন মিলে সিজান আকনকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে। আমি হত্যাকারীদের শাস্তি দাবি করছি।

নড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব আলম বলেন, এ ঘটনায় ৫ জনকে আসামী করে নিহতের বাবা বাদী হয়ে খুরে মামলা করেছে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ইব্রাহিম জয় ও রাহিম হাওলাদারকে আটক করা হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হবে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads