• বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯
গোয়ালন্দে মানসিক ভারসাম্যহীন ভিক্ষুক হত্যার রহস্য উন্মোচন, আসামি গ্রেপ্তার

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

সারা দেশ

গোয়ালন্দে মানসিক ভারসাম্যহীন ভিক্ষুক হত্যার রহস্য উন্মোচন, আসামি গ্রেপ্তার

  • গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ০৪ আগস্ট ২০২২

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে মানসিক ভারসাম্যহীন ভিক্ষুক তৈয়ব পেয়াদা (৭০) হত্যা মামলার ঘটনার সাথে জড়িত আসামি সাঈদ ফকির (৩৫) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে মামলা এ তথ্যটি নিশ্চিত করেন গোয়ালন্দঘাট থানা পুলিশ।

নিহত ভারসাম্যহীন ভিক্ষুক তৈয়ব আলী পেয়াদা ঝালকাঠি জেলার নলছিটি থানার দক্ষিন ডেবরা এলাকার বাসিন্দা।

গ্রেপ্তার আসামি হলেন, গোয়ালন্দ উপজেলার নছর উদ্দিন সরদার পাড়ার চেনোর উদ্দিন ফকিরের ছেলে সাঈদ ফকির (৩৫)।

মামলা এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই দেওয়ান শামীম খান সঙ্গীয় ফোর্সসহ গতকাল বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে গোয়ালন্দ উপজেলার মইজউদ্দিন মন্ডল পাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে গোয়ালন্দ কাদের ফকির টেকনিক্যাল কলেজের বারান্দায় মানসিক ভারসাম্যহীন ভিক্ষুক গত ৭ মে তৈয়ব পেয়াদা হত্যা মামলার ঘটনার সাথে জড়িত আসামি মো. সাঈদ ফকিরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পরে গ্রেপ্তারকৃত আসামি সাঈদ ফকিরের স্বীকারোক্তি ও দেখানো মতে হত্যায় ব্যবহৃত একটি ধারালো চাকু জুরান মোল্লার পাড়া সাকিনস্থ (কলেজপাড়া) উজ্জল সরদারের বাড়ীর পাশে ইয়াস ক্যাবল নেটওয়ার্ক লিমিটেডের মালিকানাধীন ঘাস ক্ষেতের পাশে ঝোপ ঝাড়ের মধ্যে থেকে উদ্ধার করে স্থানীয় সাক্ষীদের মোকাবেলায় জব্দ করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত আসামি জানায়, উক্ত মানসিক ভারসাম্যহীন ভিক্ষুক তৈয়ব পেয়াদার নিকট থাকা টাকা নেওয়ার সময় বাধা দেওয়ায় তাকে হত্যা করে। এবং যাওয়ার সময় উদ্ধারকৃত স্থানে চাকুটি ছুড়ে ফেলে দেয়।

এ প্রসঙ্গে গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার জানান, মানসিক ভারসাম্যহীন ভিক্ষুক তৈয়ব পেয়াদার হত্যার অপরাধে সাঈদ ফকিরকে আটক করা হয়।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads