• বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪২৯

সারা দেশ

নীলফামারীতে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা কর্মচারীদের অনিদিষ্টকালের কর্মবিরতি

  • ''
  • প্রকাশিত ১০ জুলাই ২০২৪

নীলফামারী প্রতিনিধি:

রুরাল ইলেক্টিফিকেশন বোড (আরইবি) ও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি (পিবিএস) একিভূতকরণসহ অভিন্ন চাকুরী বিধি বাস্তবায়নের দাবিতে নীলফামারীতে অনিদিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি পালন করছে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির।

বুধবার (১০ জুলাই) সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত এই কর্মসূচি পালনে নীলফামারী সদরের সুটি পাড়া কার্যালয়ের (অফিসের) সামনে অবস্থান করেন। গত ১ জুলাই থেকে এই কর্মবিরতি শুরু করেন তারা। অনিদিষ্টকালের কর্মবিরতির আজ ১০ দিন চলছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সদরে সুটি পাড়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির একজন এজিএম জানান, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (আরইবি) এর সেচ্ছাচারিতা, অদক্ষতা ও দূর্নিতিসহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা কর্মচারিদের ওপর নির্যাতন নিপিড়ন ও মানহীন (নিন্মমান) মালামাল ক্রয় করে দেশের ১২ কোটি মানুষের বিদ্যুৎ সেবা ভোগান্তিতে ফেলেছে।

এতে সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে সরকারের। পাশাপাশি, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ও সরকারের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্থ করা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, স্মার্ট টেকসই বিদ্যুৎ ব্যবস্থা বিনির্মাণে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড ও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতিকে একীভূতকরণসহ বিভিন্ন চাকুরিবিধি বাস্তবায়ন এবং সকল চুক্তিভিত্তিক কর্মচারিদের স্থায়ীকরণের দাবি করা হয় এই কর্মসূচিতে। অন্যথায় এই কর্মসূচি অব্যাহত রাখার হুমকি দেন বক্তরা।

এ সময় বক্তব্য রাখেন, ডোমার উপজেলা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এজিএম নুরুজ্জামান, নীলফামারী সদরের এজিএম ফারুক ইকবাল, কিশোরগঞ্জ উপজেলার এজিএম জিয়ারুল ইসলাম, জলঢাকা উপজেলার মিরগঞ্জ অভিযোগ কেন্দ্রের ইনচার্জ সামসুল হক ও মিটার রিডার আব্দুর রহিম প্রমুখ।

সকালে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা স্ব-স্ব কর্মস্থলে উপস্থিত হয়ে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে জেলা সদরের কুন্দপুকুর ইউনিয়নের সুটিপাড়া কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেন। এই কর্মসূচিতে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ছয় উপজেলার তিন শতাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী অংশ গ্রহন করেন।
উল্লেখ্য, নীলফামারীসহ সারা দেশে ৮০টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা ও কর্মচারিরা গ্রাহকের বিদ্যুৎসেবা সচল রেখে কর্মবিরতি পালন করছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads