• শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১ আষাঢ় ১৪২৯
ঢালিউড সাতকাহন

সংগৃহীত ছবি

ঢালিউড

ফিরে দেখা ২০২১

ঢালিউড সাতকাহন

  • সালেহীন বাবু
  • প্রকাশিত ২৮ ডিসেম্বর ২০২১

প্রতি নতুন বছর শুরু হয় ভালো থাকার প্রত্যাশা নিয়ে। তারপর যখন বছরটি শেষ হয় তখন হিসেবনিকেশ করতে বসেন সবাই। বছরটা কেমন গেল? ভালো না মন্দ? সফলতার পাল্লা ভারি নাকি হালকা? এরকম নানা প্রশ্ন এসে মনের কোনে নিঃশ্বাস ফেলে। এমনিতেই ঢালিউড তার স্বর্ণযুগ হারিয়েছে। যখন ঢালিউড ঘুরে দাঁড়াচ্ছে একটু একটু করে তখন আবার করোনার থাবা। ২০২১ সালেও করোনার রেশ কাটেনি। বছর শেষে প্রাপ্তির ফলাফলে এখনো সমাধান আসেনি। যদিও প্রাপ্তি, সফলতার কোনো মাপকাঠি নেই। এটি আপেক্ষিক বিষয়। তবে কেউ কেউ সফলতার মাপকাঠি বলতে আত্মতৃপ্তিকে বোঝায়। আত্মতৃপ্তি মানুষ বিভিন্ন মাধ্যম থেকে পেয়ে থাকে। কেউ আছেন গল্প থেকে তৃপ্তি পান, কেউ আবার চলচ্চিত্রের বিনোদনের দিকটাই উপভোগ করেন।

২০২১ সালে সারা বছরে মুক্তি পেয়েছে মোট ৩২টি সিনেমা। যার মধ্যে ২টি ছিল আমদানির। এ বছর যৌথ প্রযোজনার কোনো সিনেমা মুক্তি পায়নি। চলতি বছর ১ জানুয়ারি মুক্তি পেয়েছিল রবিউল ইসলাম রাজ পরিচালিত ‘কেন সন্ত্রাসী’ সিনেমাটি। এরপর ‘রংবাজি-দ্য লাফাঙ্গা’, ‘তুমি আছো তুমি নেই’, ‘নারীর শক্তি’, ‘হূদয়ের আঙ্গিনায়’সহ অনেকগুলো মানহীন সিনেমা মুক্তি পায়। বরাবরের মতো যেগুলো থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে দর্শক।

তবে এ বছর ভিন্নধারার সিনেমা মুক্তি বেড়েছে।  অরণ্য পলাশের ‘গন্তব্য’, হাবিবুর রহমানের ‘অলাতচক্র’, তৌকীর আহমেদের ‘স্ফুলিঙ্গ’, সেলিম খানের ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়াভাই’, নারগিস আক্তারের ‘যৈবতী কন্যার মন’, রাশিদ পলাশের ‘পদ্মাপুরাণ’, এন রাশেদ চৌধুরীর ‘চন্দ্রাবতী কথা’, প্রসুন রহমানের ‘ঢাকা ড্রিম’, আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের ‘রেহানা মরিয়ম নূর’, রেজওয়ান শাহরিয়ার সুমিত ‘নোনা জলের কাব্য’, সানী সানোয়ার ও ফয়সাল আহমেদের ‘মিশন এক্সট্রিম’, নুরুল আলম আতিকের ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’, রনী ভৌমিকের ‘মৃধা বনাম মৃধা’ সিনেমাগুলো প্রসংশা কুড়িয়েছে দর্শক-সমালোচক মহলে। বছরের শেষ মুক্তি পেয়েছে বেশ কয়েকটি অনুদানের সিনেমা। ২০২১ সালে সিনেমা মুক্তির দিক থেকে এগিয়ে ছিলেন ডিপজল আর নিরব। দুটি করে সিনেমা মুক্তি পেয়েছে তাদের। পরীমনি, অপু বিশ্বাস, মাহি, আরিফিন শুভ অভিনীত একটি করে সিনেমা মুক্তি পেয়েছে এ বছর।

এবার সারা বছর আলোচনায় ছিলেন চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী, পরীমনি। রহস্যজনকভাবে অনেকটা আড়ালে থাকার পর প্রকাশ্যে আসেন বুবলী। সে আলোচনার ফোকাস চলে যায় পরীমনির দিকে। মামলা, জেল, আদালত ইস্যুতে বেশ আলোচনায় ছিলেন তিনি। পাশাপাশি সমালোচনাও হয়েছে তাকে নিয়ে। বছর শেষে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে আসেন মাহিয়া মাহি ও ইমন। ডা. মুরাদ হাসানের সঙ্গে ফোনালাপ ফাঁসের পরই আলোচনায় তারা। এ ছাড়া বছর জুড়ে আলোচনায় ছিলেন অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন। ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ সিনেমার কারণেই আলোচনায় তিনি। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ইনিংসে বেশ সফল এ অভিনেত্রী।

বছরের শেষ দিনে মুক্তির অপেক্ষায় আছে দুই সিনেমা। মীর সাব্বিরের পরিচালনায় অনুদানের সিনেমা ‘রাত জাগা ফুল’ এবং নজরুল ইসলামের ‘চিরঞ্জীব মুজিব’। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে সিনেমাটি। নিবেদন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার ছোটবোন শেখ রেহানা।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads