• বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪২৯

ভারত

জম্মু-কাশ্মীরে সশস্ত্র হামলায় ৫ ভারতীয় সেনা নিহত

  • ''
  • প্রকাশিত ০৯ জুলাই ২০২৪

জম্মু-কাশ্মীরের কাঠুয়া জেলার দুর্গম মাচেদি এলাকায় ভারতীয় সামরিক বাহিনীর কনভয়ে হামলায় পাঁচ সেনা সদস্য নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ছয়জন। সোমবার (৮ জুলাই) এই হামলা হয়েছে বলে এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে। এ নিয়ে গত ৪৮ ঘণ্টায় জম্মু-কাশ্মীরে দ্বিতীয়বারের মতো ভারতের সেনাবাহিনীর ওপর হামলার ঘটনা ঘটল।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কাঠুয়া থেকে প্রায় ১৫০ কিলোমিটার দূরে মাচেদি-কিন্ডলি-মালহার সড়কে সেনাবাহিনীর যানবাহন নিয়মিত টহলে ছিল। সেইসময় এই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। এতে পাঁচজন নিহত ও ছয়জন আহত হয়েছেন। আহত সেনা সদস্যদের হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

প্রাথমিক হামলার পর সন্ত্রাসীরা সেনাদের কনভয়ে বোমা ছোড়ে এবং গুলি চালায়। সেনারা পাল্টা হামলা শুরু করলে সন্ত্রাসীরা পাশের বনে পালিয়ে যায়। সন্ত্রাসীদের ধরতে নিরাপত্তা বাহিনী তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে।

এর আগে গত রোববার রাজৌরি জেলায় সেনা ক্যাম্পে হামলা চালানো হয়। তাতে এক সেনা সদস্য আহত হন।


জম্মু-কাশ্মীরের কুলগাম জেলায় গত শনিবার রাতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দুটি আলাদা অভিযানে ৬ সন্ত্রাসী নিহত হওয়ার ২৪ ঘণ্টা পরই নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর নতুন করে এই হামলার ঘটনা ঘটলো। শনিবার বন্দুকযুদ্ধের সময় দুই সেনা সদস্য নিহত হোন।

জম্মু-কাশ্মীরে গত কয়েক মাস ধরে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা বেড়েছে। গত মাসে, রিয়াসি জেলায় সন্ত্রাসীরা তীর্থযাত্রীদের একটি বাসে গুলি চালায়, এতে বাসটি খাদে পড়ে গিয়ে নয়জন নিহত হয়। এর কয়েকদিন পর, দুই সশস্ত্র সন্ত্রাসী একটি গ্রামে ঢুকে গুলি চালায়। ঘটনাস্থলে নিরাপত্তা বাহিনী এসে পৌঁছালে বন্দুকযুদ্ধে সন্ত্রাসীরা গুলিবিদ্ধ হলেও নিরাপত্তা বাহিনীর এক সদস্য নিহত হয়।

গত মাসে জম্মু ও কাশ্মীরের ডোডা জেলার গান্দোহ এলাকায় সন্ত্রাসী এবং নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে একটি ভয়ঙ্কর বন্দুকযুদ্ধের পর তিন সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। ওই সন্ত্রাসীরা কাশ্মীর উপত্যকায় সেনাবাহিনী ও পুলিশের ওপর সাম্প্রতিক একটি হামলার সঙ্গে জড়িত ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গত সপ্তাহে সংসদে বলেছিলেন, জম্মু ও কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই শেষ পর্যায়ে রয়েছে। সন্ত্রাসীদের অবশিষ্ট নেটওয়ার্ক ধ্বংস করার জন্য একটি বহুমুখী কৌশল গ্রহণ করা হয়েছে।

লোকসভার বিরোধী নেতা রাহুল গান্ধী বলেছেন, শুধু ফাঁকা আওয়াজ বা বুলি নয়, চলমান সন্ত্রাসী হামলার বিরুদ্ধে কঠিন পদক্ষেপ নিতে হবে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads