• মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯
কেরানীগঞ্জে মারুফ হত্যা মামলা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে পাঠানোর দাবি

সংগৃহীত ছবি

জাতীয়

কেরানীগঞ্জে মারুফ হত্যা মামলা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে পাঠানোর দাবি

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১৭ জুন ২০২২

কেরানীগঞ্জের মারুফ কাজী হত্যা মামলা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর ও ঘাতকদের জামিন বাতিলের দাবি জানিয়েছে ভুক্তভোগী পরিবার। বৃহস্পতিবার সকালে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

লিখিত বক্তব্যে নিহত মারুফের বড়ভাই মামুন কাজী বলেন, ২০২১ সালের ২২ মে নিজ বাসায় খুন হন মারুফ। তাকে ঘুমের মধ্যে হাত পা বেঁধে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ি আগের রাতে তাকে খাবারের সঙ্গে চেতনা নাশক দ্রব্য মিশিয়ে দেওয়া হয়। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী মারুফের মেয়ে সুকর্ণা কাজী (১১)। এ ঘটনার ঘাতক মারুফের স্ত্রী উর্মি ও ইমরান পুলিশের হাতে ধরা পড়লেও তারা জামিনে বেরিয়ে মারুফের পরিবারকে নানা হুমকি দিচ্ছে। এছাড়া মারুফের মেয়েকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। তিনি জানান, ঊর্মি ও ইমরানের চার বছর ধরে পরকীয়া ছিল। সে সম্পর্ক জেনে ফেলাই কাল হয়েছে মারুফের। এ অবস্থায় মারুফের হত্যাকারিদের জামিন বাতিল করে মামলাটি দ্রুত বিচার আইনে স্থানান্তরিত করার দাবি জানান তিনি।

মামুন কাজী বলেন, খুনি উর্মির মা ও বোন রোজিনা, বোন জামাই নাসির ও খালাতো ভাই জাহাঙ্গীরসহ সবাইকে নজরদারির মধ্যে রাখা হোক। ইতিমধ্যে হাইকোর্টে আসামীদের জামিন বাতিলের জন্য আপিল করা হয়েছে। এই মামলার প্রধান আসামী উর্মির জামিন বাতিল এবং অন্য আসামী ইমরান যাতে জামিন না পায়, এবং মারুফের কন্যা সুকর্ণার জীবনের নিরাপত্তা দিতে প্রধানমন্ত্রী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ আইন প্রয়োগকারি সংস্থার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন নিহতের ভাই মামুন কাজী। সংবাদ সম্মেলনে মারুফের বাবা মো. মাসুম কাজী, বড়বোন রেহানা সুলতানা রেনু, ছোট মেয়ে সুকর্না কাজী ও পরিবারের অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

বিশ্ব

অর্থ সহায়তা দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

  • আপডেট ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২

বিশ্ব

ইরানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৬

  • আপডেট ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২

দুর্ঘটনা

রাজধানীতে সড়কে ঝরলো ২ প্রাণ

  • আপডেট ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২


বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads