• বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮
সজল ও প্রভার ‘জার্মোফোবিয়া’

সংগৃহীত ছবি

শোবিজ

সজল ও প্রভার ‘জার্মোফোবিয়া’

  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১৮ মে ২০২১

অনিতা অতি সাবধানী মেয়ে। বিশেষ এক ধরনের ফোবিয়া রয়েছে তার। ব্যাগের মধ্যে কসমেটিকসের পরিবর্তে থাকে বিভিন্ন রকমের স্যানিটাইজার, ডিজইনফেকটেন্ট স্প্রে। কেউ তার কাছে আসলে কিংবা তার গায়ে কোনো স্পর্শ লাগলে স্প্রে করা শুরু করে। শুধু তাই না, জীবাণুমুক্ত থাকার জন্য দিনের মধ্যে বেশ কয়েকবার গোসল করে। কেউ তার ব্যবহারের কোনো জিনিস ধরলে সেটা আর স্পর্শ করে না। একবার রাস্তায় ছিনতাইকারীরা তার ব্যাগ ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। ব্যাগের চিন্তা না করে ছিনতাইকারীদের হাতের স্পর্শ থেকে রক্ষার জন্য ব্যস্ত হয়ে স্প্রে করা শুরু করে সে। ঘটনার সময় সামনে এসে পড়ে সালমান। তাকে দেখে ছিনতাইকারীরা দৌড়ে পালানোর সময় অনিতার মোবাইল ফোনটা ফেলে যায়। সালমান সেটা অনিতার হাতে তুলে দিতে গেলে অনিতা অন্যের হাতের স্পর্শ লেগেছে বলে মোবাইল না নিয়ে দৌড়ে চলে যায়। তার এমন আচরণে অবাক হয় সালমান। ঘটনাচক্রে সালমানের সঙ্গেই বিয়ে ঠিক হয় অনিতার। কিন্তু বাসর রাতেই অনিতার কর্মকাণ্ড দেখে বিরক্ত হয় সালমান। তার বিছানায় বসা যাবে না, তাকে স্পর্শ করা যাবে না, এক বিছানায় ঘুমানো যাবে না। সালমান তার জন্য ফুল নিয়ে আসলে জার্ম আছে বলে সে ফুল স্পর্শ করে না। ঘরের মধ্যে মাস্ক এবং ফেসশিল্ড পরে থাকে। এসব দেখে রীতিমত অতিষ্ঠ হয়ে ওঠে সালমান। একপর্যায়ে নিজের বাড়িতে চলে যায় অনিতা। এর মধ্যে অসুস্থ হয়ে পড়ে সালমান। এরপর গল্প মোড় নেয় অন্যদিকে।

এবারের ঈদ আয়োজনে এমনই একটি গল্পে নির্মিত হলো একক নাটক ‘জার্মোফোবিয়া’। আসাদুজ্জামান সোহাগ-এর রচনা ও মাহমুদ হাসান রানার পরিচালনায় এই নাটকে অভিনয় করেছেন সজল ও প্রভা। প্রচারিত হবে আজ সন্ধ্যা ৬টায় মাছরাঙা টেলিভিশনে।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads