• সোমবার, ৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯
পদ্মা সেতুতে টোল আদায় হবে ৩ সেকেন্ডে

সংগৃহীত ছবি

যোগাযোগ

পদ্মা সেতুতে টোল আদায় হবে ৩ সেকেন্ডে

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২৫ জুন ২০২২

পদ্মা সেতু এলাকায় বসছে আধুনিক ইলেকট্রনিকস টোল কালেকশন (ইটিসি) বুথ। এতে চলমান গাড়ি থেকে মাত্র ৩ সেকেন্ডে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আদায় হবে টোল। ফলে সড়কযাত্রায় টোল দিতে আর গুনতে হবে না অপেক্ষার প্রহর।

প্রথম পর্যায়ে সেতুর দুই প্রান্তের টোল প্লাজায় দুটি গেটে বসানো হবে ইটিসি বুথ। পর্যায়ক্রমে দুই প্রান্তের অন্য ১২টি গেটেও স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা চালু করা হবে। আগামী ছয় মাসের মধ্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে টোলসুবিধা চালু হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

টোল আদায়ের দায়িত্বে থাকা কোরিয়ান এক্সপ্রেসওয়ে করপোরেশন বুথগুলো স্থাপন করছে। এই স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে টোল পরিশোধের জন্য যানবাহনের উইন্ডশিল্ডে লাগাতে হবে বিশেষ রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি আইডেন্টিফিকেশন (আরএফআইডি) কার্ড। ফাস্ট ট্র্যাকের মাধ্যমে এই প্রি-পেইড কার্ড থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে টোল কেটে নেবে ইটিসি বুথ।

বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের প্রধান প্রকৌশলী (কারিগরি) কাজী মোহাম্মাদ ফেরদৌস বলেন, পদ্মা সেতুর দুই প্রান্তের টোল প্লাজায় সাতটি করে মোট ১৪টি গেট রয়েছে। এর মধ্যে প্রথম পর্যায়ে দুই প্রান্তে দুটি গেটে ইলেকট্রনিকস টোল কালেকশন বুথ চালু হবে। যার ভেতর দিয়ে একটি গাড়ি মাত্র তিন সেকেন্ডে পার হতে পারবে। বাকি ১২টি গেট ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে পরিচালিত হবে। তবে যানবাহনে আরএফআইডি কার্ডের ব্যবহার যত বাড়বে তত ইটিসি বুথ বাড়ানো হবে।
কাজী মোহাম্মাদ ফেরদৌস জানান, ডিজিটাল পেমেন্টের জন্য যানবাহনে অবশ্যই বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) অনুমোদিত আরএফআইডি ট্যাগ থাকতে হবে। গাড়ির মালিক ব্যাংকে বা টোল প্লাজায় গিয়ে আরএফআইডির জন্য সরাসরি নিবন্ধন করতে পারবেন। এই নিবন্ধনের জন্য যানবাহন মালিকদের অবশ্যই ডাচ্-বাংলা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট অথবা রকেট মোবাইল অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে। রকেট অ্যাকাউন্টটি নেক্সাস-পে অ্যাপ্লিকেশনটিতে আগে নিবন্ধন করতে হবে। নিবন্ধনের পর ইলেকট্রনিক টোল দেওয়ার সুবিধা পাওয়া যাবে।

এ বিষয়ে সেতু সচিব মো. মনজুর হোসেন বলেন, সেতু এলাকায় একটি অটোমেটিক টোল সিস্টেম থাকবে। এটা এমন না যে ২৫ তারিখ থেকে চালু হবে। এর জন্য আমাদের কিছুটা সময় লাগবে। যে কোম্পানি কাজ নিয়েছে তাদের অন্তত ছয় মাস সময় লাগবে ইটিসি চালু করতে।

সেই সিস্টেমটা থাকবে এমন যে কারও কাছে নির্দিষ্ট কার্ড থাকলে তার গাড়ি আনইন্টারাপ্টেড ক্রস করবে। দ্যাট মিনস, গাড়ি থামাতে হবে না। কার্ড থেকে টাকা কেটে নেবে, যেটা ইটিসি (ইলেকট্রনিক টোল কালেকশন) বলে। টাকা নির্দিষ্ট অ্যাকাউন্টে চলে যাবে। বার উঠে যাবে।

মনজুর হোসেন বলেন, কারও কাছে কার্ড না থাকলে সে ক্যাশ দিয়ে অথবা ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ড ব্যবহার করেও পার হতে পারবে। প্রতিটা সিস্টেমে একটা ডেডিকেটেড ইটিসি প্রথমে থাকবে, আস্তে আস্তে আমরা পুরোটাই ইটিসিতে চলে যাওয়ার চেষ্টা করব।

কোরিয়া ও চীনের দুটি কোম্পানি যৌথভাবে পাঁচ বছরের জন্য পদ্মা বহুমুখী সেতু রক্ষণাবেক্ষণ ও টোল আদায়ের দায়িত্ব পেয়েছে। এরা হলো কোরিয়া এক্সপ্রেসওয়ে করপোরেশন (কেইসি) এবং চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি লিমিটেড (এমবিইসি)। কোম্পানি দুটি এ জন্য পাবে ৬৯২ কোটি ৯২ লাখ টাকা।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads