• রবিবার, ১৪ আগস্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯
উর্দুভাষীদের জাতীয় পতাকা র‌্যালি

সংগৃহীত ছবি

মহানগর

উর্দুভাষীদের জাতীয় পতাকা র‌্যালি

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১৮ মে ২০২২

উর্দুভাষীদের ভোটাধিকার আদায়ের ১৪ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে রাজধানীর মিরপুর পল্লবীতে জাতীয় পতাকা র‌্যালি বের করেছে উর্দু স্পীকিং পিপলস ইউথ রিহ্যাবিলিটেশন মুভমেন্ট (ইএসপিওয়াইআরএম)। বুধবার সকালে রাজধানীর পল্লবীতে অবস্থিত আয়োজক সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে র‌্যালিটি বের হয়ে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে শেষ হয়। পরে সেখানে অনুষ্ঠিত হয় সংক্ষিপ্ত সমাবেশ।

এসময় ইউএসপিওয়াইআরএম'র সভাপতি মো. সাদাকাত খান ফাক্কুর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক শাহিদ আলি বাবলু, সহ-সভাপতি আব্দুর রাশিদ খান বিরেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোক্তার হোসেন, দপ্তর সম্পাদক শেখ নাজের উদ্দীন রাশেদ প্রমুখ।

সমাবেশে ইউএসপিওয়াইআরএম'র সভাপতি মো. সাদাকাত খান ফাক্কু বলেন, উর্দুভাষীরা মনে প্রাণে বাংলাদেশকে ভালোবাসে। ২০০৮ সালের ১৮ই মে হাইকোর্টের দেয়া রায় বাস্তবায়নের ফলে উর্দুভাষীরা নিজ সন্তানদের ভালো স্কুল কলেজে ভর্তি করাতে পারছে। চাকুরী, ব্যবসা করতে পারছে। আমাদের কাছে আজ ভোট আছে বলেই রাজনৈতিক নেতারা আমাদের খোঁজখবর নেন। এজন্য ১৮ই মে উর্দুভাষী বাংলাদেশীদের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন।

এসময় স্বাধীনতার ৫১ বছর পর উর্দুভাষী নাগরিকদের পুনর্বাসনে সু-স্পষ্ট ঘোষণা দেয়ায় বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান তিনি। একইসঙ্গে পুনর্বাসের আগে বিহারিদের ক্যাম্প উচ্ছেদ ও বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্নের কার্যক্রম বন্ধ রাখতে প্রধানমন্ত্রীর শক্ত হস্তক্ষেপ দাবি করেন এ বিহারি নেতা।

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালের ১৮ই মে উর্দুভাষীদের সংগঠন ইউএসপিওয়াইআরএমের সভাপতি সাদাকাত খান ফাক্কুর নেতৃত্বে সংগঠনটির ১১ নেতৃবৃন্দের দায়ের করা এক রীটের প্রেক্ষিতে সারাদেশের ১১৬ টি ক্যাম্পে বসবাসরত উর্দুভাষীদের নাম জাতীয় ভোটার তালিকায় অর্ন্তভুক্ত করাসহ তাদের জাতীয় পরিচয় পত্র প্রদানের রায় দেন হাইকোর্ট। তখন থেকে প্রতি বছর ১৮ই মে ভোটাধিকার দিবস হিসেবে পালন করে আসছে উর্দুভাষীরা।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads