• বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
মৌলবাদের তকমা লাগিয়ে সরকার ক্ষমতা দীর্ঘস্থায়ী করতে চায়: গয়েশ্বর চন্দ্র রায়

প্রতিনিধির পাঠানো ছবি

রাজনীতি

মৌলবাদের তকমা লাগিয়ে সরকার ক্ষমতা দীর্ঘস্থায়ী করতে চায়: গয়েশ্বর চন্দ্র রায়

  • চাঁদপুর প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ২৩ অক্টোবর ২০২১

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলায় পুলিশ-জনতা সংঘর্ষে নিহত ও পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তিনি শনিবার সন্ধ্যায় হাজীগঞ্জ উপজেলার শ্রী শ্রী রাজা লক্ষ্মী নারায়ণ জিউর আখড়া ও মকিমাবাদ সেবাশ্রম ও মন্দির পরিদর্শন করেন।

পরিদর্শন শেষে সেবাশ্রমে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, সরকার জনগনের নিরাপত্তা দিতে চরমভাবে ব্যর্থ হয়েই মৌলবাদীর তকমা লাগিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের মতো পরিকল্পিতভাবে এ হামলার ঘটনা ঘটিয়ে ক্ষমতা দীর্ঘ স্থায়ী করতে চাই।

তিনি বলেন, হাজীগঞ্জ বাজারে যখন মিছিল হয় তখন পুলিশ কেন চুপ ছিল। পুলিশ প্রসাশন যদি তাদের দায়ীত্ব পালন করতো অথবা সজাগ থাকতো তা হলে এমন ঘটনার জন্ম হতো না।

তিনি বলেন, পুলিশ প্রকৃত দায়ী ব্যক্তিদের আড়াল করে বিএনপির নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করছে।

আমরা এখন সরকারে নাই তাই হিন্দু সম্প্রদায় এভাবে হামলা শিকার হচ্ছে। আমরা মতায় থাকলে আমাদের নেতা কর্মীরা পাহারা দিয়েই এ মন্দির গুলো রা করে সুন্দর পরিবেশ তৈরি করতে পারতো।

এ সময় তার সফরসঙ্গী ছিলেন বিএনপি কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, ত্রাণ ও পুনর্বাসন সম্পাদক হাজী ইয়ছিন রশীদ, সহ ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক অমেন্দ্র দাস অপু, বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মো: মোস্তফা মিয়া, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার  মমিনুল হক, দেবাশীষ রায় মধু, মোস্তফা খান সফরী, চাঁদপুর জেলা বিএনপির আহবায়ক শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক হাজী ইমাম হোসেন, হাজীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহিম পাটোয়ারি, বিএনপি নেতা আবু নাফের শাহ, নাজমুল আলম চৌধুরী, মিজানুর রহমান প্রমূখ।

নেতৃবৃন্দ পুজামণ্ডপের ক্ষতিগ্রস্থদের সঙ্গে কথা বলেন।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads