• সোমবার, ৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯

রাজনীতি

সরকারের উচিৎ পদত্যাগ করে বিএনপির কাছে ক্ষমতা দেওয়া: মির্জা ফখরুল

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১৩ মার্চ ২০২২

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির বিষয়ে চরম ব্যর্থতার দায় নিয়ে আওয়ামী লীগ সরকারের উচিৎ ক্ষমতা থেকে পদত্যাগ করা এবং ক্ষমতা বিএনপির কাছে হস্তান্তর করা। আজ রোববার সকাল ১১টার দিকে ঠাকুরগাঁও শহরের কালিবাড়ি এলাকায় নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকারের মন্ত্রীরা অনেক রকম কথা বলেন। ঠাকুরগাঁওয়ে এসেও তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন- দ্রব্যমূল্য ঊর্ধ্বগতির পেছনে বিএনপি জড়িত। এখনও যদি বিএনপি এসব নিয়ন্ত্রণ করতে পারে তাহলে আওয়ামী লীগ সরকারে আছেন কেন? আওয়ামী লীগের উচিৎ পদত্যাগ করা এবং ক্ষমতা বিএনপির কাছে হস্তান্তর করা।

তিনি বলেন, সরকারের মন্ত্রীরা এ ধরনের কথাবার্তা বলে এই সমস্যাটাকে আরও হাস্যকর অবস্থায় নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছে। আমি মনে করি- জনগণের সঙ্গে এই সরকার তামাশা করছে। যেখানে মানুষ খেতে পারছে না; মানুষ চাল, ডাল, লবণ কিনতে পারছে না। দ্রব্যমূল্যের উর্দ্ধগতির কারনে সাধারণ ও নিন্ম আয়ের মানুষ অসহায় হয়ে পরেছে। সে জায়গায় আওয়ামী লীগ সরকার এগুলো নিয়ে হাস্যকর কথা, উদ্ভট কথাবার্তা বলে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে। দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির জন্য সরকারের উদাসীনতা এবং সরকারের চরম ব্যর্থতা এর জন্য দায়ি।

ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের সমস্যাটা হচ্ছে- এই সরকার যেহেতু জনগণের দ্বারা নির্বাচিত নয়, যেহেতু জনগণের প্রতি তাদের কোন দায়বদ্ধতা নেই; সেই কারণেই তারা এসব কথা বলার সাহস করে।

মির্জা ফখরুল বলেন, সংবাদকর্মীরা যেন কথা বলতে না পারেন, লিখতে যেন না পারেন সেজন্য সরকার অনেকগুলো আইন তৈরি করেছে। বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম যেটা আমরা বলছি- এই মিডিয়া যেন কখনও ইফেকটিভ ওয়েতে কাজ করতে না পারে তার জন্য অনেকগুলো আইন তৈরি করেছে। তারমধ্যে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন, ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টে ইতোমধ্যে প্রায় ৬০০ মত সংবাদকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা আছে। ইতোমধ্যে ২০০ সংবাদকর্মীকে গ্রেফতারও করা হয়েছে।

রাশিয়া - ইউক্রেনের যুদ্ধ নিয়ে আ. লীগ সরকার কোন ধরনের ইফেকটিভ স্টেটমেন্ট দিতে পারেনি অভিযোগ তুলে মির্জা ফখরুল বলেন, রাশিয়া ও ইউক্রেনের যে আগ্রাসন এটাকে আমরা নিন্দা করেছি। আমরা মনে করি- ইউএন চার্টার অনুযায়ী কোন দেশের সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘন করে সেই দেশে আগ্রাসন কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য না। অবিলম্বে এই যুদ্ধ বন্ধ এবং জাতিসংঘের প্রস্তাব মেনে নেয়া উচিৎ সকলকে।

এসময় ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপির সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা তৈমুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সল আমীনসহ বিএনপি ও সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads