• বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯
ভালোভাবে ‘সেরে উঠছেন’ পেলে

সংগৃহীত ছবি

ফুটবল

ভালোভাবে ‘সেরে উঠছেন’ পেলে

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

শারীরিক অবস্থা হঠাৎ খারাপ দিকে যাওয়ায় আগের দিন পেলেকে পুনরায় নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে নেওয়া হলেও এখন তিনি বেশ ভালো আছেন। ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি নিজেই জানিয়েছেন, তিনি ‘ভালোভাবে সেরে উঠছেন।’

অ্যাসিড রিফ্লাক্সের কারণে ৮০ বছর বয়সি পেলেকে আইসিইউতে ফেরানো হয়েছে বলে শুক্রবার ইএসপিএন ব্রাজিল জানায়। তাৎক্ষণিকভাবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বা পেলের পরিবারের পক্ষ থেকে কিছু জানানো হয়নি।

এর কয়েক ঘণ্টা পর পেলের মেয়ে জানান, তার বাবার শারীরিক অবস্থা তেমন গুরুতর কিছু নয়। এরপর একমাত্র ফুটবলার হিসেবে তিনটি বিশ্বকাপজয়ী এই মহাতারকা ইনস্টাগ্রামে নিজেই জানান, সেরে উঠছেন তিনি। ‘আমার বন্ধুরা, আমি এখনো খুব ভালোভাবে সেরে উঠছি। আজ (শনিবার) পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে আমার দেখা হয়েছে এবং আমি হাসিখুশি আছি। আপনাদের কাছ থেকে যে ভালোবাসার বার্তা পেয়েছি তার জন্য ধন্যবাদ।’

শারীরিক কিছু সমস্যা দেখা দেওয়ায় চলতি মাসের শুরুতে নিয়মিত পরীক্ষার অংশ হিসেবে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছিল ৮০ বছর বয়সি পেলেকে। সেখানেই তার বৃহদান্তে টিউমার ধরা পড়ে এবং এরপর অস্ত্রোপচার করা হয়।

গত মঙ্গলবারেই তাকে আইসিইউ থেকে জেনারেল রুমে নেওয়া হয়েছিল। সেই রাতে পেলে নিজেই ইন্সটাগ্রামে নিজের একটি হাস্যোজ্জ্বল ছবিসহ দিয়ে লিখেছিলেন, এখন তিনি অনেকটাই সুস্থ।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবর, পেলের বয়সের দিক বিবেচনা করেই সতর্কতার অংশ হিসেবে তাকে পুনরায় নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে নেওয়া হয়েছে।

এরপর হাসপাতালের পক্ষ থেকে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়, পেলের শারীরিক অবস্থা এখন অনেকটাই স্থিতিশীল এবং তাকে সেমি-ইনটেনসিভ কেয়ারে রাখা হয়েছে।

হাসপাতালের বিবৃতির আগে পেলের মেয়ে ইনস্টাগ্রামে জানান, তার বাবার অসুস্থতা নিয়ে গুজব ছড়ানোয় অসংখ্য বার্তা পাচ্ছেন তিনি। ‘আমি জানি না সেখানে গুঞ্জন নিয়ে কী হচ্ছে, কিন্তু আমার কাছে গুলির মত ডিএমে (ইনস্টাগ্রাম বার্তা) আসছে। এই ধরনের অস্ত্রোপচারের পর তার বয়সের একজন মানুষের স্বাভাবিকভাবে সেরে ওঠার চিত্রটা এমনই, কখনও কখনও দুই ধাপ উন্নতি হয় এবং এক ধাপ পিছিয়ে যায়। এটা খুবই স্বাভাবিক। গতকাল তিনি ক্লান্ত ছিলেন এবং একটু শরীর খারাপ করেছিল। আজ আবার তার শরীর দুই ধাপ ভালো হয়েছে।’

কোভিড-১৯ মহামারীর আগে থেকেই শারীরিকভাবে ভুগতে হচ্ছে পেলেকে। তখন থেকেই বাইরের ব্যস্ততা একরকম বন্ধ হয়ে গিয়েছিল তার। বছরের পর বছর ধরে নিতম্বের সমস্যায় ভুগছেন এবং সাহায্য ছাড়া চলাফেরা করতে পারেন না ব্রাজিল জাতীয় দল, সান্তোস ও নিউইয়র্ক কসমসে খেলা পেলে।

গত বছর পেলের ছেলে বলেছিলেন, তার বিখ্যাত বাবা বিষন্নতায় ভুগছেন। পেলে যদিও তা অস্বীকার করেছিলেন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads