• শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯

ফুটবল

শাস্তির মুখে পিএসজি সভাপতি খেলাইফি

  • অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশিত ১১ মার্চ ২০২২

সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে হেরে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে ছিটকে গেছে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যম মার্কা জানিয়েছে, ম্যাচ শেষে রেফারিদের প্রতি অসন্তোষ জানিয়ে তাদের রুমের দিকে তেড়ে গেছেন পিএসজির সভাপতি নাসের আল খেলাইফি।

রেফারিদের সঙ্গে পিএসজি সভাপতির বাজে আচরণের যে অভিযোগ উঠেছে, তার সত্যতা এখনও প্রকাশ্যে আসেনি। তবে উয়েফার পক্ষ থেকে আল খেলাইফি ও ক্লাবের স্পোর্টিং ডিরেক্টর লিওনার্দোর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

ইউরোপীয় ফুটবল সংস্থার পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার রাতে ওই দুইজনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলে জানানো হয়। তবে, কী বিষয়ে সেটা স্পষ্ট করেনি সংস্থাটি। ইংলিশ সংবাদ মাধ্যম রয়টার্স এমন সংবাদ সামনে এনেছে।

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে বুধবার রাতে দ্বিতীয় লেগে মাঠে নামার আগে ১-০ গোলে এগিয়ে ছিল। পিএসজি। দ্বিতীয় লিগেও শুরুতে এগিয়ে যায় ফরাসি ক্লাবটি। তবে ৬১ মিনিটে বেনজেমা গোল করে ম্যাচের দৃশ্যপট বদলে দেয়। এরপর বেনজেমার হ্যাটট্রিকে ম্যাচটি ৩-১ গোলে জেতে লস ব্লাঙ্কসোরা।

শেষ পর্যন্ত দুই লেগ মিলিয়ে ৩-২ গোলে পিএসজিকে হারিয়ে শেষ আটে জায়গা করে নেয় রিয়াল। ম্যাচে রিয়ালের প্রথম গোল নিয়ে ম্যাচ শেষে অসন্তোষ প্রকাশ করে পিএসজি কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনো এবং ক্লাবটির সভাপতি খেলাইফি।

পিএসজি সভাপতি খেলাইফি শেষ বাঁশি বাজার পর ভিআইপি বক্স থেকে সিঁড়ি বেয়ে দ্রুত নেমে যান খেলাইফি। রেফারিদের ড্রেসিংরুম খোঁজ করছিলেন তিনি। মার্কা লিখেছে, এ সময় খেলাইফির চোখমুখ ক্ষোভে লাল হয়ে ছিল। এতটাই রেগে ছিলেন যে, ভুলক্রমে রিয়াল মাদ্রিদেরই প্রতিনিধি মেহিয়া দাভিলার কক্ষে ঢুকে পড়েন তিনি। রেফারিদের রুমে গিয়ে আল খেলাইফির চিৎকার করার ঘটনাও ঘটে। ওই সময় তার সঙ্গে ছিলেন ক্লাবের স্পোর্টিং ডিরেক্টর লিওনার্দো।

পুরো ঘটনাটি রিয়ালের এক কর্মচারী তার মোবাইল ফোনে ভিডিও করে বলেও দাবি করা হয়েছে প্রতিবেদনে। এএসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, পুরো ঘটনাটি রিয়ালের এক কর্মী ভিডিও করার সময় তাকে ‘আমি তোমাকে খুন করব’ বলে হুমকি দেন খেলাইফি।

বিস্তারিত কিছু না জানালেও পিএসজির ওই দুজনের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া শুরুর বিষয়টি রয়টার্সকে নিশ্চিত করেছে উয়েফা।

যেখানে তারা জানিয়েছে, ‘আমরা নিশ্চিত করছি যে একটি আইনি প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। উয়েফা নিয়ন্ত্রক, এথিকস ও ডিসিপ্লিনারি বডি আগামীতে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে।’

এতসব অভিযোগ এবং উয়েফার আইনি প্রক্রিয়া নিয়ে পিএসজির মন্তব্য জানতে যোগাযোগ করে রয়টার্স। কিন্তু ক্লাবটির পক্ষ থেকে কোনো সাড়া মেলেনি।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads