• মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
ads
চিরিরবন্দরে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টা; ধর্ষককে গণধোলাই

প্রতীকী ছবি

অপরাধ

চিরিরবন্দরে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টা; ধর্ষককে গণধোলাই

  • প্রকাশিত ১২ জুন ২০১৯

দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার পল্লীতে ৫ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। ধর্ষণ চেষ্টাকারীকে এলাকাবাসী হাতেনাতে আটক করে গণধোলাই দিয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৩টায় জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার হরিশচন্দ্রপুর মুন্সিপাড়ায় এই ঘটনা ঘটে।

ধর্ষণকারী মোস্তাকিম ইসলাম (৫০) চিরিরবন্দর উপজেলার দগরবাড়ী ইউনিয়নের মৃত আফাজ উদ্দিনের ছেলে। এলাকাবাসীর হাতে গণধোলাইয়ের শিকার মোস্তাকিমকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অভিযোগকারী ওই শিশুটির মা বলেন, বিকেলে আমার মেয়ে এবং ছোটো ছেলেসহ বাড়ির কিছুটা দূরে মোখলেছুর রহমানের দোকানের পাশে খেলছিল। এমন সময় পাশের গ্রামের মোস্তাকিম নামে এক লোক এসে আমার মেয়েকে খুচরা পয়সা হাতে দিয়ে লোভ দেখিয়ে সেকেন্দার আলীর পাট ক্ষেতে নিয়ে যায়। পরে ধর্ষণ করার চেষ্টা করলে আমার মেয়ে চিৎকার করে। আমি আমার মেয়ের চিৎকার শুনে দৌড়ে গেলে মোস্তাকিম পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় আমার মেয়ে মোস্তাকিমকে দেখিয়ে দিলে এলাকাবাসী তাকে আটক করে গণধোলাই দেয়। পরে শিশুটিকে উদ্ধার করে চিরিরবন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। ধর্ষণকারীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানান শিশুটির মা।

এই ঘটনার পরে চিরিরবন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম রাব্বানী ও চিরিরবন্দর থানার ওসি হারেসুল ইসলাম হাসপাতালে শিশুটিকে দেখতে যান।

এদিকে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত মোস্তাকিম ইসলামকেও চিরিরবন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তাকে পুলিশ প্রহরায় রাখা হয়েছে।

চিরিরবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারেসুল ইসলাম বলেন, আমি প্রাথমিকভাবে মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি এবং হাসপাতালে শিশুটিকে দেখতেও গিয়েছিলাম। শিশুটির পরিবার এখনও লিখিত অভিযোগ দেয়নি। লিখিত অভিযোগ দিলেই ধর্ষণ চেষ্টাকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads