• সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯
সড়ক নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ

ছবি: প্রতিনিধির

সারা দেশ

সড়ক নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ

  • কুষ্টিয়া প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ১৫ মে ২০২২

কুষ্টিয়ায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের বিরুদ্ধে গ্রামীর সড়ক উন্নয়ন, কালভার্ট, সড়ক নির্মাণে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

এ ব্যাপারে পত্র-পত্রিকায় লেখালেখি হলেও এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। যার ফলে অনিয়ম বেড়েই চলেছে। কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার সদরপুর জিসি-আলমডাঙ্গা আরএন্ডএইচ সড়ক প্রসস্থকরণ কাজের জন্য (ইজিপি আইডি- ৬০৭২৪৭) এর টেন্ডার দেওয়া হয়। যার প্রাক্কলিত মূল্য নির্ধারণ করা হয় ৪৬ লাখ ৪ হাজার ১৯ টাকা। চুক্তিমূল্য হয় ৪৩ লাখ ৭৩ হাজার ৮১৮ টাকা ৫ পয়সা। কার্যাদেশ হয় ২০২১ সালের ১৭ নভেম্বর। কাজটি শুরু হয় ২৩ নভেম্বর ২০২১ এবং শেষ হয় ২০২২ সালের ২২ জানুয়ারি। কাজটি পায় কুষ্টিয়ার থানাপাড়ার মেসার্স শামীম এন্টারপ্রাইজের প্রোপাইটার এসএম শামীম। এই সড়ক এতো দুর্বল হয়েছে যে বৃষ্টির পানিতে নষ্ট হয়ে গেছে। রাস্তার কার্পেটিং এখন এলাকার মানুষ হাত দিয়েই তুলে ফেলছে। নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করায় রাস্তার কার্পেটিং উঠে গর্তে পরিণত হয়েছে। বৃষ্টিতে কয়েক জায়গায় সড়ক ভেঙে গেছে। সড়কে পানি নিষ্কাশনের জন্য কালভার্টের দরকার হলেও ভাঙা কালভার্টটি কোন রকম জোড়াতালি দিয়ে সরু পাইপের মতো তৈরি করা হয়েছে। নিম্নমানের ইটের খোয়া ব্যবহার করায় কিছু কিছু স্থান উঁচু নিচু হয়ে গেছে। ৪০ মি.মি কার্পেটিং করার কথা থাকলেও অভিযোগ রয়েছে ২৫ মিমি কার্পেটিং করা হয়েছে। সদরপুর বাজারের এক ব্যবসায়ী বলেন, নামমাত্র পিচ দিয়ে কার্পেটিং করা হয়েছে। এলাকাবাসী আরো অভিযোগ করেন, উপজেলা প্রকৌশলী বা উপ-সহকারী প্রকৌশলীরা এই সড়ক মেরামতের কোনো তদারকি করেন নাই। যার কারণে এই রাস্তার বেহাল দশা হয়েছে। মিরপুর উপজেলা প্রকৌশলী কার্যালয়ের উপ-সহকারী প্রকৌশলী কামরুজ্জামান জানান, কাজের মান ঠিক ছিল, কিন্তু কার্পেটিংটা সঠিক মানের হয়নি।

পিচের কার্পেটিং লেয়ার কম উল্লেখ করে তিনি জানান, এটার এখনো বিল দেওয়া হয়নি। কাজের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ছিল মেসার্স শামীম এন্টারপ্রাইজ। তবে তিনি কাজটি মিঠু নামের এক ঠিকাদারের কাছে বিক্রি করে দেন। ঠিকাদার মিঠু বলেন, কাজের মান ঠিক থাকার কথা। তবে যেহেতু ভেঙে যাচ্ছে তা গিয়ে দেখবো। প্রকৌশলী গোলাপ আলী শেখ জানান, নিম্নমানের কাজ হয়েছে এমন কোনো লিখিত অভিযোগ আসেনি।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads