• বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫
ads
পশু জবাইয়ের জন্য ৩৭০ স্থান নির্ধারণ করেছে চট্টগ্রামে সিটি করপোরেশ

লোগো চট্টগ্রামে সিটি করপোরেশ

সংরক্ষিত ছবি

সারা দেশ

পশু জবাইয়ের জন্য ৩৭০ স্থান নির্ধারণ করেছে চট্টগ্রামে সিটি করপোরেশ

  • চট্টগ্রাম ব্যুরো
  • প্রকাশিত ১৯ আগস্ট ২০১৮

চট্টগ্রাম নগরীতে কোরবানির ঈদের দিন পশু জবাইয়ের জন্য ৩৭০টি স্থান নির্ধারণ করেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক)। চসিকের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাপতি শৈবাল দাশ সুমন এ তথ্যটি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী ঈদের দিন বিকেল ৪টার মধ্যে নগরীর সকল পশুর বর্জ্য অপসারণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বর্জ্য অপসারণে নিয়োজিত থাকবে ৫ হাজার পরিচ্ছন্নকর্মী। পশু জবাইয়ের জন্য নগরীর ৪১ ওয়ার্ডের ৩৭০টি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে ৪ লাখ ১০ হাজার লিফলেট, ২০ হাজার ৫০০ পোস্টার এবং ৭৬ হাজার ২৩১টি ব্যানার ৪১ ওয়ার্ডে বিতরণ করা হয়েছে। তাছাড়াও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে নির্ধারিত পশু কোরবানির স্থানে পর্যাপ্ত পানি, বসার স্থান, তাবু টাঙানো এবং ব্লিচিং পাউডারের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের নির্দেশনা অনুযায়ী ঈদের দিন ও ঈদের পরের দিন মোট ২ দিনে প্রতিটি ওয়ার্ডে আবর্জনাবাহী গাড়ি, পে লোডার, ট্রাক্টর ওয়াগনসহ ২৪১টি গাড়ি বর্জ্য অপসারণে নিয়োজিত থাকবে। এছাড়া ১০টি গাড়ি দামপাড়া কন্ট্রোল রুমে রিজার্ভ থাকবে।

এদিকে বর্জ্য অপসারণ কার্যক্রম শতভাগ নিশ্চিত করতে সিটি করপোরেশনের ৫ হাজার পরিচ্ছন্ন কর্মীর ছুটি বাতিল করা হয়েছে। ঈদের দিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টার মধ্যে পুরো নগরীর পশুর বর্জ্য অপসারণ এবং ঈদের পরের দিন রাত পর্যন্ত বর্জ্য অপসারণের লক্ষ্যে ৪১টি ওয়ার্ডকে উত্তর, দক্ষিণ, পূর্ব, পশ্চিম হিসেবে ৪টি জোনে ভাগ করা হয়েছে। প্রত্যেক জোন তদারকির জন্য গঠন করা হয়েছে উপ-কমিটি।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads